নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: উদ্বোধনের প্রায় দেড় মাস পর অবশেষে সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে চাষাঢ়া বালুর মাঠ ভাষা সৈনিক সড়কের সংস্কার কাজ। উদ্বোধনের দুই মাসের মধ্যে কাজ শেষ করে ফেলার কথা থাকলেও গত দেড় মাসে কাজ শুরুই করা যায়নি বলে স্থানীয়দের মধ্যে যে হতাশা বিরাজ করছিলো, কাজ শুরু হওয়ার খবরে তা কিছুটা হলেও লাঘব হবে বলে মনে করেন তারা।

বালুর মাঠ ভাষা সৈনিক সড়কের সংস্কার কাজ শুরু হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডিকে জানান, কাজটি আরো আগেই শুরু হওয়ার কথা ছিলো। কিন্তু শ্রমিক পাওয়া যাচ্ছিলো না বলে ঠিকাদারের পক্ষে শুরু করা সম্ভব হয়নি। এখন প্রয়োজনীয় সংখ্যক শ্রমিক পাওয়া গেছে এবং শ্রমিক সর্দারের সাথে আমার কথা হয়েছে, সোমবার থেকে পুরোদমে কাজ শুরু হয়ে যাবে।

প্রসঙ্গত, জাপানী উন্নয়ন সংস্থা জাইকার অর্থায়নে প্রায় আড়াই কোটি টাকা ব্যয়ে ৫৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের এই সড়কটির উন্নয়ন কাজের ঠিকাদারী করছে ঢাকার মামস কনষ্ট্রাকশন কোম্পানী। সড়কটির দুইপাশে আরসিসি ড্রেন ও জনগনের চলাচলের জন্য ফুটপাত নির্মাণ করা হবে।

উল্লেখ্য, নারায়ণগঞ্জের প্রাণকেন্দ্র চাষাঢ়া বালুর মাঠ সড়কটির অবস্থা বেহাল। দীর্ঘদিন সংস্কার না হওয়ায় সড়কটির বিভিন্ন জায়গায় বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। সেসব গর্তে পানি জমে তা চলাচলের একদম অনুপযোগী হয়ে পরেছে। তাছাড়া রাস্তাটির যে অল্প কিছু স্থান ভালো রয়েছে তার প্রায় পুরোটাই দখল করে রেখেছে স্থানীয় লোহা ব্যবসায়ীরা। ফলে এ রাস্তা দিয়ে চলাচল করা প্রায় দুরূহ হয়ে দাঁড়িয়েছে। লোহা ব্যবসায়ীদের দখল থেকে মুক্ত করে নগরীর ব্যস্ততম এই সড়কটি জনগনের চলাচলের জন্য পুন:নির্মানের দাবী এই এলাকার মানুষের দীর্ঘদিনের।

নারায়ণগঞ্জ শহরের ব্যস্ততম এলাকা চাষাঢ়া শহীদ মিনারের পাশ দিয়ে শুরু হওয়া রাস্তাটি বালুর মাঠের ভিতর দিয়ে প্রেসক্লাবের সামনে গিয়ে মিশেছে। প্রতিদিন কয়েকহাজার মানুষ এই রাস্তা দিয়ে চলাচল করে। কিন্তু সংস্কারের অভাবে রাস্তাটি ভেঙ্গে বেশ কয়েকটি গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এর ফলে এ রাস্তা দিয়ে রিক্সা বা হালকা যানবাহন চলাচল প্রায় অসম্ভব হয়ে দাড়িয়েছে। যারা যাচ্ছে তারা মাঝে মধ্যেই দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here