নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি, সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের আওয়ামীলীগ দলীয় সংসদ সদস্য একেএম শামীম ওসমান বলেছেন, আমি ধান্দাবাজির রাজনীতি করি না। জমি কিনা, জমি দখল করা, ইটখোলা দখলে নেয়া, চুনা ফ্যাক্টরী দখলে নেয়া কিংবা মাছে খামার দখলে নেয়া কিংবা মানুষের জিনিস খাওয়া, সন্ত্রাসীকে লালন-পালন করা আমার কাজ নয়।

শামীম ওসমান বলেন, কিছু কিছু ক্ষেত্রে আমি এখনও নমনীয় আছি। কিন্তু কিছু কিছু প্রশ্নে আমি ছাড় দিতে রাজি নই। যেমন মাদক, মাদক যে বিক্রি করে সে যদি আমার ছেলেও হয় তবে আমি তাকে ছাড় দিব না, দেয়া উচিতও নয়।

শনিবার ৮ ডিসেম্বর দুপুরে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ১নং, ২নং, ৩নং ও ৪নং ওয়ার্ডে নির্বাচনী কেন্দ্রের পরিচালনা কমিটির সাথে পৃথক পৃথক মতবিনিময় ও পরামর্শ সভায় তিনি এ সব কথা বলেন।

শামীম ওসমান বলেন, আওয়ামীলীগে কোন সন্ত্রাসীকে দরকার নেই। আওয়ামীলীগ নিজেই যথেষ্ট শক্তিশালী দল। সন্ত্রাসীদের উপর ভরসা করে আমাদের রাজনীতি করতে হবে এমন না, যারা সাধারণ মানুষের জমি খেলে ফেলবে এমন মানুষের সঙ্গে রাজনীতি করতে রাজি না, আমি জুলম করবও না, জুলম সহ্যও করব না। কারণ আমি জানি আমাকে মাটির নিচে একদিন যেতেই হবেই। আল্লাহ আমাকে যে সম্মান দিয়েছেন, আল্লাহ আমাকে একদিন জিজ্ঞাসা করবেন তোমাকে জনপ্রতিনিধি বানিয়েছি তুমি কি করেছে? আমাকে জবাব দিতে হবে। আমি ন্যায় বিচার করার চেষ্টা কবর।

তিনি বলেন, আমার রাজনৈতিক সাহসী সন্তান দরকার আছে, মাস্তান আমার দরকার নেই। মাস্তান মাস্তানী করে সব সরকারের আমলেই ঘুরে ফিরে মাস্তানী করে। এক সময় বাপে করে, এক সময় চাচা করে, এক সময় ভাইয়ে করে, তারা ভাগ করে। তুই এই আমল, তুই এই আমল। ওই আমল-ছামল খেলা আমার সঙ্গে হবে না, আমি যদি মনে করি আমার শক্তি প্রয়োগ করতে হবে, আমি যদি শক্তি প্রয়োগের রাজনীতি করতে যাই তবে নারায়ণগঞ্জের বিএনপি আধাঘন্টাও থাকতে পারবে না। আমি শক্তি প্রয়োগ করব না। আমি মানুষের মনে জায়গা করতে চাই। শামীম ওসমান বলেন, সিএস আরএস ও এসএ পর্চা দেখেই আওয়ামীলীগ করাবো, আওয়ামীলীগ এমনতেই অনেক শক্তিশালী দল।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় শ্রমিক কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি আব্দুল মতিন মাষ্টার, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান, সহ-সভাপতি মতিউর রহমান বেপারী, সাধারণ সম্পাদক ইয়াছিন মিয়া, প্রচার সম্পাদক তাজিম বাবু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক ও নাসিক ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আরিফুল হক হাসান, কাউন্সিলর ইফতেখার আলম খোকন, কাউন্সিলর ওমর ফারুক, জেলা যুবলীগের স্বাস্থ্য ও পরিবেশ বিষয়ক সহ-সম্পাদক হাজী সুমন কাজী, নারায়ণগঞ্জ জেলা বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন সভাপতি সিরাজুল ইসলাম মন্ডল, আওয়ামীলীগ নেতা মাহবুব হোসেন প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here