নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ -২ (আড়াইহাজার) আসনে বিএনপির প্রার্থী নজরুল ইসলাম আজাদের গাড়িতে হামলা চালিয়েছে স্থানীয় সাংসদ নজরুল ইসলাম বাবুর সন্ত্রাসী বাহিনী- এমনটাই অভিযোগ করেছেন আজাদ ।

বৃহস্পতিবার (১৩ ডিসেম্বর) বিকেলে আড়াইহাজারের সাতগ্রাম ইউনিয়নের পাচরুখী গ্রামে আজাদের নিজস্ব বাসভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই অভিযোগ করেন ।

সংবাদ সম্মেলনে নজরুল ইসলাম আজাদ বলেন, বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে সাতগ্রাম ইউনিয়নের পুরিন্দা বাজারের মোড়ে বিএনপির নেতাকর্মীদের হয়রানি ও মারধর করা হচ্ছে এমন সংবাদ পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে যাই। আমি ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে স্থানীয় সাংসদ নজরুল ইসলাম বাবুর সেকেন্ড ইন কমান্ড সাতগ্রাম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ওয়াদুদের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী আমার গাড়িতে হামলা চালিয়ে গাড়ি ভাঙচুর করে এবং ধারালো অস্ত্র দিয়ে নেতাকর্মীদের আঘাত করে । আমরা প্রতিরোধ করার চেষ্টা করি । কিন্তু দেশীয় অস্ত্র সাথে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে এলোপাথারী হামলা চালানোর ফলে আমাদের প্রায় ৪০ জন নেতাকর্মী গুরুতর আহত হয় । তাদের মধ্যে ৩৩ জন ঢাকা মেডিকেলসহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে ।

 

আজাদ আরো বলেন, এই সন্ত্রাসী ঘটনার আগে থেকেই সেখানে স্থানীয় প্রশাসনের লোকজন উপস্থিত থাকলেও তারা নিশ্চুপ ছিলো। প্রশাসনের সামনেই বাবুর সন্ত্রাসী বাহিনী এই ন্যাক্কারজনক হামলা চালিয়েছে। ঘটনার পর আড়াইহাজার থানায় অভিযোগ করতে গেলে তারা অভিযোগ গ্রহণ করেনি । আমি বিষয়টি নির্বাচন কমিশনকে মৌখিকভাবে জানিয়েছি । আমি এই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই এবং নির্বাচনের লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিতের জোর দাবি জানাচ্ছি ।
হামলায় আহতরা হলেন জুবায়ের, নাজমুল, সিফাত, হৃদয়, আনোয়ার, জলিল, আইয়ুব আলী, মনির, সাদেক সহ প্রায় ৪০ জন নেতাকর্মী।

এ বিষয়ে আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: আক্তার হোসেন জানান, আমি নিজে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। সেখানে কোন হামলার ঘটনা ঘটেনি । দু পক্ষের মধ্যে ইট পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটেছিলো। আমরা গিয়ে দু’পক্ষকে শান্ত করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছি ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here