নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: সৎ ভাইদের হাত থেকে সম্পত্তি রক্ষায় সকলের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন নগরীতে ডন চেম্বারের অসহায় বৃদ্ধা রহিমা বেগম। এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তিসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধির কাছেও তিনি বিচার চেয়ে পাননি। বাধ্য হয়ে গিয়েছিলেন থানায়। থানাও তার অভিযোগ গ্রহণ করেনি। পরিশেষে সম্পত্তি রক্ষার্থে চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে পিটিশন মামলা করেছেন বিধবা এই বৃদ্ধা। পিটিশন মামলা নং-৮৯/১৭। মামলা দায়েরের পর প্রভাবশালী সৎ ভাইদের হুমকিতে চরম নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটাচ্ছেন তিনি।

মামলায় ডন চেম্বারের মৃত কালা চাঁন মুন্সির স্ত্রী রহিমা বেগম উল্লেখ করেন, মামলার আসামী তার সৎ ভাই সুমন, বুলবুল, মাইনউদ্দিন ও মুজাম্মেল তার পাশের বাড়িতে থাকেন। তার স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকে আসামীগন তার বাড়ি দখলের পাঁয়তারা শুরু করে। এ বিষয়ে তিনি স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর শওকত হাশেম শকুসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিদের দ্বারস্থ হয়েও কোন সমাধান পাননি বলে অভিযোগ করেন অসহায় বৃদ্ধা নারী।

এমতাবস্থায় গত ৮ মে সোমবার আসামীরা বৃদ্ধা রহিমা বেগমের বাড়িতে এসে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। রহিমা বেগম এর প্রতিবাদ করলে আসামীরা লোহার রড দিয়ে তাকে আঘাত করে। এতে সে মারাত্মকভাবে আহত হন। আসামীরা রহিমা বেগমের গলায় থাকা এক ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন ছিড়ে নিয়ে যায়। এ সময় রহিমা বেগমের চিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এলে আসামীরা চলে যায় এবং যাওয়ার সময় হুমকি প্রদান করে বলে, এ বিষয়ে কোন মামলা মোকদ্দমা করলে এর চেয়েও ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি হবে এবং তোর প্রাণ নিয়ে নেবো ও তোকে এলাকা ছাড়া করবো।

আসামীরা চলে গেলে লোকজন সবাই মিলে আহত রহিমা বেগমকে মূমূর্ষ অবস্থায় খানপুর ৩০০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে যান এবং চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। চিকিৎসা শেষে কিছুটা সুস্থ্য হয়ে তিনি আদালতে পিটিশন মামলা দায়ের করেন। কিন্তু মামলা দায়েরের পর থেকে আসামীরা রহিমা বেগমকে নানা প্রকার হুমকি দিয়ে আসছে। অভিভাবকহীন বৃদ্ধ রহিমা বেগম এতে চরম নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। তাই আসামীদের দ্রুত গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনার জন্য তিনি সকলের সু-দৃষ্টি কামনা করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here