নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং অফিসার রাব্বী মিয়া বলেছেন, সরকারী কর্মকর্তা, কর্মচারী থেকে শুরু করে সর্ব সাধারণকে অবাধ-সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ ভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করাটাই আমাদের প্রধান টার্গেট। জন নিরাপত্তা বিঘিœত হয়, এমন পরিস্থিতি আমরা বরদাস্ত করবো না। নির্বাচন পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে এবং যে কোন অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রশাসন জিরো টলারেন্সে থাকবে।

সোমবার (১০ ডিসেম্বর) দুপুরে নারায়ণগঞ্জের সংসদীয় ৫টি আসনের প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ শেষে তিনি সকলের উদ্দেশ্যে একথা বলেন।

নারায়ণগঞ্জে শান্তিপূর্ণ নির্বাচন হবে দাবী করে রাব্বী মিয়া আরো বলেন, এই নারায়ণগঞ্জ শিল্প, সংস্কৃতি থেকে শুরু করে সবকি দিয়েই অন্যান্য জেলার চেয়ে এগিয়ে। আমি অত্যন্ত সৌভাগ্যবান এমন একটি জেলায় চাকরি করতে পেরে। আমি সর্বোচ্চ চেষ্টা করবো এখানে শান্তিপূর্ণ পরিস্থিতিতে নির্বাচন শেষ করতে। যাতে করে বাকী জেলাগুলো এখান থেকে কিছু শিখতে পারে।

জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ বলেন, এই নির্বাচন আমাদের জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ। সকল দলের প্রার্থীরা যাতে সুষ্ঠুভাবে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারে, পুলিশ সে ব্যপারে সর্বদা চেষ্টা চালিয়ে যাবে। আমরা একাত্তরে হারিনি। এই বিজয়ের মাসে নির্বাচনকে ঘিরে কোন সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজের কাছেও আমরা পরাজিত হবো না। সেবা দেয়ার মানসিকতা নিয়ে এসেছি, সেবা দিয়ে যাবো।

গার্মেন্টস শিল্পের চলমান নৈরাজ্য দমনে পুলিশ কঠোর অবস্থানে রয়েছে দাবী করে তিনি আরো বলেন, তৈরি পোশাক খাতে যে নৈরাজ্য, তা দমনে পুলিশ তৎপর রয়েছে। নির্বাচনকে ঘিরে কোন পরিস্থিতিতেই যাতে পোশাক শিল্প অশান্ত না হয়, সেদিকে পুলিশ সচেষ্ট।

এসময় তিনি প্রার্থীদের সহনশীল হওয়ার আহবান জানিয়ে বলেন, পুলিশ সুষ্ঠু ভোটাধিকার প্রয়োগে নিরপেক্ষ ভাবে কাজ করবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here