নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নগরীর বাবুরাইলের মা মেয়েসহ একই পরিবারের পাঁচ জনকে হত্যার দায়ে ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত একমাত্র আসামী ভাগ্নে মাহফুজের রায় দ্রুত কার্যকরের দাবী জানিয়েছেন মামলার বাদী নিহত তসলিমার স্বামী শফিকুল ইসলাম ও তার শ্বাশুড়ী।
সোমবার (৭ আগষ্ট) সকাল সাড়ে ১১ টায় নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালত বেগম হোসনে আরা পাঁচ খুন মামলার একমাত্র আসামী ভাগ্নে মাহফুজের ফাঁসির দন্ডাদেশ প্রদান করেন।

আদালতের রায় ঘোষণার পর তাৎক্ষনিক প্রতিক্রিয়ায় নিহত গৃহবধূ তাসলিমার স্বামী সাংবাদিকদেও কাছে বলেন, ‘আদালতে মাহফুজের মৃত্যুদন্ডাদেশ দেয়ায় আমরা খুশি। সে আমার সাজানো সংসার শেষ কওে দিচ্ছে। এখন উচ্চ আদালতেও যেন এই সাজা বহাল থাকে এবং রায় দ্রুত বাস্তবায়ন করা হয় এই প্রত্যাশা করছি।’

তাসলিমার মা বলেন, ‘আমাগো সবকিছু শেষ কইরা দিছে মাহফুজ। ওর ফাঁসি তাড়াতাড়ি যেন সরকার কার্যকর করে।’

উল্লেখ্য, মামীর সঙ্গে পরকীয়া সম্পর্কের জের ধরে গত বছরের ১৫ জানুয়ারী দিবাগত রাত থেকে ভোর পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জ শহরের বাবুরাইল খানকা মোড় এলাকায় ‘আশেক আলী ভিলা’ নামের একটি বাড়ির একটি ফ্ল্যাটে ভাগ্নে মাহফুজ একাই শিলপোঁতা দিয়ে আঘাত ও শ্বাসরোধ করে একই পরিবারের পাঁচজনকে নৃংশসভাবে গলা কেটে হত্যা করে। ১৬ জানুয়ারী আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী বাড়ির ফ্ল্যাটের তালা ভেঙে তাদের লাশ উদ্ধার করে। নিহতরা হলেন, তাসলিমা আক্তার (৪০) তার ছেলে শান্ত (১০), মেয়ে সুমাইয়া (৫), ভাই মোরশেদুল (২৫) এবং তার জা লামিয়া (২৫)।

এরপর নিহত তাসলিমার স্বামী শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here