নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সাংসদ সেলিম ওসমানের মত আমি এত ভদ্র মানুষ না বলে মন্তব্য করেছেন তারই অনুজ নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ শামীম ওসমান।
সোমবার (১৫ জানুয়ারী) বিকেল ৪ টায় নগরীর চাষাড়াস্থ সিটি মাকের্টের সামনে নারায়ণগঞ্জ হকার্স সংগ্রাম পরিষদ আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্যকালে এই মন্তব্য করেন তিনি।

শামীম ওসমান বলেন, ‘নগরীর গরীব হকারদের দাবীর প্রেক্ষিতে আমার বড় ভাই সেলিম ওসমান গত ১৩ জানুয়ারী মেয়রকে চিঠি জানিয়ে অনুরোধ করেছিলেন। কিন্তু তড়িৎগতিতেই তিনি নাসিকের কর্মচারী দিয়ে আমার ভাইয়ের অনুরোধে না জানিয়ে দিবেন এটা মানতে পারলাম না।’

তিনি বলেন, ‘আসলে সেলিম ওসমান ভদ্র মানুষ। কিন্তু আমি তার মত এত ভদ্র মানুষ না। শামীম ওসমান শেখ হাসিনার মত গরীবের জন্য রাজনীতি করে। আমি বুঝি গরীবের ক্ষুধার জ¦ালা কতটুকু? আমার ছোট বোন বলেছে আমি নাকি আমার ছেলের বিয়েতে ২৫ কোটি টাকা খরচ করেছি। এখন যেন হকারদের জন্য কয়েকটি মার্কেট নির্মান করে দেই। কিন্তু আমি বলতে চাই, শামীম ওসমানের জবাব দিতে ২ মিনিটও লাগবে না। আল্লাহ যদি আমাকে তোফিক দেন তাহলে আমি ২৫শ’ কোটি টাকা দিয়ে গরীবের জন্য মার্কেট নির্মান করে দিব। আর আমি না পারলেও আমার বড় ভাই সেলিম ওসমান তা করতে পারবেন। কারন, তিনি ইতিমধ্যেই বিভিন্ন খাতে নিজ তহবিল থেকে ৮০ কোটি টাকার উন্নয়ণ ও অনুদান দিয়েছেন।’

শামীম ওসমান আরো বলেন, ‘আল্লাহ দাম্ভিকতা ও অহংকারীদের পছন্দ করেন না। আপনারা আমার বোন মেয়রের জন্য দোয়া করবেন, আল্লাহ যেন তাকে হেদায়েত দান করেন।’

নারায়ণগঞ্জ হকার্স সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি মো: আসাদুল ইসলাম আসাদের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন, সিপিবি জেলা সভাপতি কমরেড হাফিজুল ইসলাম, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এড. আবু হাসনাত মো: শহীদ বাদল, মহানগর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, যুগ্ম সম্পাদক শাহ্ নিজাম, শহর যুবলীগ সভাপতি শাহাদাত হোসেন সাজনু, মহানগর স্বেচ্ছা সেবকলীগ সভাপতি জুয়েল আহম্মেদ, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি মেখ সাফায়েত আলম সানী, মহানগর ছাত্রলীগ আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান রিয়াদ, মহানগর হকার্সলীগ সভাপতি আব্দুর রহিম মুন্সী প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত বছরের ২৫ ডিসেম্বর থেকে নগরীর ফুটপাতে চলমান উচ্ছেদ অভিযানের কারনে পুনর্বাসনের পূর্বে উচ্ছেদ বন্ধের দাবীতে আন্দোলন চালিয়ে আসছেন নগরীর প্রায় ৪ হাজার হকার। তারা মেয়র, ডিসি ও এসপিকে স্মারকলিপি প্রদান করেন।

কিন্তু মেয়র সাফ জানিয়ে দেন, প্রয়োজনে গুলি খেলেও তিনি শহরের বিবি রোডের ফুটপাতে কোন হকার বসতে দিবেন না।

এরপর হকাররা শামীম ওসমানের দ্বারস্থ হলে এই এমপি হকারদের মেয়রের কাছে যাওয়ার পরামর্শ দেন। যদি তাতেও কোন ব্যবস্থা না হয় তাহলে নিজে ব্যবস্থার আশ^াস দেন।

পরবর্তীতে গত ১৩ জানুয়ারী বিকেলে হকাররা নারায়ণগঞ্জ রাইফেলস্ ক্লাবে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের এমপি সেলিম ওসমানের দ্বারস্থ হয়ে বিকেল ৫ টা থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত ফুটপাতে ব্যবসা করার সুযোগ দেয়ার দাবী জানান। তার প্রেক্ষিতে সেলিম ওসমান হকারদের অনুরোধ রাখতে মেয়রকে চিঠি পাঠান। এরপর মেয়র নগরীতে চারটি বিকল্প স্থানে হকার বসার অনুমতি দিয়ে সেলিম ওসমানকে পাল্টা চিঠি প্রেরণ করেন।

কিন্তু হকাররা মেয়রের প্রস্তাবিত স্থান গুলোতে বসবে না সাফ জানিয়ে দিয়ে সোমবার (১৫ জানুয়ারী) বিক্ষোভ সমাবেশ করলে সেখানে শামীম ওসমান উপস্থিত হয়ে এই গরীব হকারদের মঙ্গলবার বিকেল থেকে ফুটাপাতে বসতে নির্দেশ প্রদান করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here