নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমান বলেছেন, দুই প্রকার কীট দিয়ে করোনা পরীক্ষা করা হয়। রেড এবং ইয়োলো কীটের মধ্যে নারায়ণগঞ্জের পিসিআর মেশিনে ইয়োলো কীট সার্পোট করে কিন্তু এবার এসেছে রেড কীট। তাই সাময়ীক পরীক্ষা কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে।

সোমবার (২২ জুন) বিকালে নারায়ণগঞ্জের জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

সাংসদ বলেন, টেস্টের জন্য ৩০হাজার কীটের অর্ডার দিয়েছেন সরকার। যার মধ্য ২০হাজার রেড কীট এবং ১০হাজার ইয়ালো কীট। আমাদের যে পিসিআর ম্যাশিনটি রয়েছে তা ইয়ালো কীট এলাও করে। কিন্তু যাকে কীটের অর্ডার দিয়েছেন তিনি ৩০ হাজার কীটই এনেছেন রেড।

শামীম ওসমান আরো বলেন, যারা টেষ্ট নিয়ে ব্যবসা করতে চান, ধান্ধা করতে চান বি-কেয়ারফুল থাকেন। এটা জাতীর পিতার কন্যা শেখ হাসিনা, কাউকে ছাড় দিবেন না। টাইম ইজ কামিং। সন্তান যেমন মাকে চিনে, আমি তেমন শেখ হাসিনাকে চিনি। কোন ছাড় পাবেন না।

তিনি আরও বলেন, খাদ্যের প্রশ্নে আমাদের কোন সমস্যা হয়নি। যেখানে সমস্যা হয়েছে, সেখানে পুলিশ গিয়েছে। সাংবাদিক গিয়েছে। ডিএনডির সমস্যা হয়েছে, সেনাবাহিনী এগিয়ে এসেছে। পানি সম্পদ মন্ত্রনালয় এগিয়ে এসেছে পানি নেমে যাচ্ছে। আমি সন্তুষ্ট কারন প্রধানমন্ত্রী মূখ্য সচিব, সচিব তারা নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে এগিয়ে এসেছে। এসএসফ প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার দায়িত্ব তারাও এগিয়ে এসেছে। গোয়েন্দ সংস্থা তারাও এগিয়ে আসছে। যাদের দায়িত্ব না তারাই এগিয়ে আসছে। কিন্তু যাদের তারা কেনো দায়িত্বহীনতায় ভূগছে?

তিনি জানান, প্রো-এক্টিভ মেডিকেল কলেজের আইসিও সার্পোট আছে। কিন্তু কিছু নার্স ও ডাক্তারের দরকার। আল বারাকা হসপিটাল ওনাদের অক্সিজেন সার্পোট আছে, কিন্তু আইসিও নেই। তারাও আজ থেকে করোনা রোগী ভর্তি করাবে। আমি ওনাদের প্রশ্ন করেছিলেন আপনারা কি সরকারের কাছে কোন ব্যানিফিট চান? তারা বলেছেন, আমরা কোন ব্যানিফিট চাই না আল্লাহর কাছে আল্লাহর রহমত চাই। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কতগুলা রোগী ভর্তি হবে, কিভাবে চিকিৎসা হবে সেগুলা প্রশাসন ও সিভিল সার্জনকে রির্পোট করবেন।

৫হাজার টাকার বিনিময়ে বাহির থেকে করোনা টেস্ট করা হয়ে এবং খুব দ্রুত রির্পোট দেওয়া হয় এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জের খুব বড় বড় সমস্যা সমাধান করার চেষ্ঠা করছি। এই ছোট ছোট সমস্যাগুলা শিগ্রই সমাধান করা হবে। যারা এমন বানিজ্যের সাথে জড়িত তারা নারায়ণগঞ্জে থাকতে পারবে না বলেও হুশিয়ারী দেন তিনি।

অন্যান্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দিন, সিভিল সার্জন ডা. ইমতিয়াজ আহম্মেদ, ফোকাল পার্সন ডা: জাহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here