নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: দ্বিতীয় মেয়াদে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর প্রথমবার ‘জনতার মুখোমুখি’ হয়ে বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবসহ প্রতিশ্রুতি দিলেন ডা: সেলিনা হায়াত আইভী।
রবিবার (২৩ জুলাই) সকালে নগর ভবন প্রাঙ্গণে (২০১৭-১৮ইং) অর্থবছরের বাজেট ঘোষণার পর স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের অধীন জাইকা সহায়তাপুষ্ট “সিটি গভরনেন্স প্রকল্প” এর আওতায় নাসিক এর স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও সুশাসন নিশ্চিতকল্পে আয়োজিত ‘জনতার মুখোমুখি জনপ্রতিনিধি’ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে আইভীর পাশে একই মঞ্চে বসেছিলেন, নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সাংসদ সেলিম ওসমান, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ জেলা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এএফএম এহতেশামুল হক।
এসময় আইভীর পাশপাশি সেলিম ওসমানও সাধারন জনগণের কয়েকটি প্রশ্নের উত্তর দেন।

নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটির সভাপতি এড. এবি সিদ্দিকী মেয়রকে উদ্দেশ্য করে ৩টি প্রশ্ন করেন। তিনি বলেন, ‘শুনেছি ওয়াসার দায়িত্ব সিটি করপোরেশনের হাতে বর্তাচ্ছে। সেক্ষেত্রে ওয়াসা মাসিক এবং বাৎসরিক জনগণের কাছ থেকে যে চার্জ নিয়ে থাকে, নাসিক দায়িত্ব পেলে সেটি যে কোন একটি বাদ দেয় যায় কী না? শাহী মসজিদের যে পুকুরটি বিগত বাজেটে সংরক্ষণের কথা উল্লেখ করা ছিল, সেটির কাজ কতদূর এবং নগরীর সড়কগুলো ভেঙে গেলে তাৎক্ষণিক মেরামতের জন্য বাজেটে কোন বরাদ্দ রাখা সম্ভব কী না?’

তার প্রশ্নের জবাবে মেয়র আইভী বলেন, ‘আমরা ওয়াসার দায়িত্ব নিতে প্রস্তুত নই। ওয়াসা আমাদের দায়িত্ব দিতে আগ্রহী হলেও আমরা সেটা এ মূহুর্তে নিচ্ছি না। এলজিআরডি মন্ত্রনালয় ও দায়িত্ব নিতে প্রস্তুত না। কেননা নারায়ণগঞ্জে ওয়াসা বিগত ৩০ বছরে কতটুকু কাজ করেছে তার হিসেব নিকেশ পরিষ্কার না হওয়া পর্যন্ত আমরা এ দায়িত্ব নিব না। তাছাড়া ওয়াসা এখনো পর্যন্ত রাস্তা খুড়াখুড়ি করে নাসিকের যে ক্ষতি করেছে, সেই ক্ষতি বাবদ ৫’শ কোটি টাকা ভর্তুকি দিলেই আমরা দায়িত্ব নিব।’

এসময় তিনি পুকুরের সংরক্ষণের কাজ চলমান রয়েছে বলে এবি সিদ্দিকের মাধ্যমে নগরবাসীকে আশ্বস্ত করেন।

খেলাঘর কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম জহির তার প্রশ্নে বলেন, ‘নারায়ণগঞ্জে পাঠাগারে নতুন বইয়ের জন্য যে বাজেট বরাদ্দ করা হয়েছে তা অতি সামান্য বলে আমি মনে করি। এ বাজেট টা কম পক্ষে ১০ গুণ করা যায় কী না? শীতলক্ষ্যার দুই পাশে যে রাস্তা নির্মাণের কথা রয়েছে, তার পরিকল্পনা ১০ বছর থেকে ৫ বছরে নিয়ে আসা যায় কী না? পাশাপাশি নগরীতে শিক্ষা নিয়ে যে বাণিজ্য চলছে, তা বন্ধে সিটি করপোরেশন কোন দায়িত্ব নিতে পারে কী না?’

তার উত্তরে আইভী বলেন, ‘পাঠাগারে এমনিতেও প্রচুর পরিমাণে পুরনো বই রয়েছে। তাছাড়া এই বরাদ্দ শুধুমাত্র এ বছরের জন্য। তারপরেও আমরা চেষ্টা করবো যাতে বরাদ্দ আরেকটু বারানো যায়।’ এসময় পাঠাগারে নতুন বই সংরক্ষণের জন্য বিকেএমইএ’র সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সাংসদ একেএম সেলিম ওসমান ব্যবসায়ী সংগঠনের পক্ষ হতে ২০ লাখ টাকা অনুদান দেয়ার ঘোষণা দেন।’

এদিকে শীতলক্ষ্যার দুই পাশে রাস্তা নির্মাণের পরিকল্পনার বিষয়ে মেয়র আইভী বলেন, ‘শীতলক্ষ্যার দুই পারের রাস্তা নির্মাণে আমরা দুটি সংস্থার বাধার সম্মূক্ষীণ হচ্ছি যার মধ্যে বন্দরে নৌ-পরিবহন মন্ত্রনালয় দাবী করছেন রাস্তাটি তারা করবেন আর নারায়ণগঞ্জে নদীর পার ঘেষে রাস্তাটি বিআইডব্লিউটিএ করবে বলে দাবী করছেন। সুতরাং তাদের সাথে ফয়সালা না হওয়া পর্যন্ত আমরা এবিষয়ে সুস্পষ্ট কিছু বলতে পারছি না। শিক্ষা বাণিজ্য নিয়ে করণীয় বিষয়ে বলতে গেলে আমরা চেষ্টা করছি নাসিকের ২৭ টি ওয়ার্ডে যেখানে জমি খালি পড়ে আছে সেখানে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নির্মাণে। তাছাড়া শুধু নাসিকের একার পক্ষে এই শিক্ষা বাণিজ্য নিরসন সম্ভব নয়। এ জন্য সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।’

এক বক্তা তার নাসিকের ২৭টি ওয়ার্ডে ২৭টি খেলার মাঠ, সোনাকান্দায় শিশু পার্ক নির্মাণ ও শহরের যানজট নিরসনে নগরীর ৫নং ঘাট থেকে বিবি রোড হয়ে চাষাঢ়া, খানপুর টু চাষাঢ়া হয়ে নতুন বোর্ট পর্যন্ত ফ্লাই ওভার ব্রীজ নির্মাণে মেয়রের সদিচ্ছা কামনা করলে সাংসদ সেলিম ওসমান বলেন, ‘যেহেতু আমরা দুইজন একসাথে বসেছি, নগরীর সমস্যাগুলো সমাধানে আমরা আবার বসবো। একসাথে কাজ করলে কোন শক্তি নাই যে সোনাকান্দা দখল করে রাখবে। আমরা সিটি করপোরেশনে ওই জমিটির জন্য লীজ আবেদন করবো। যাতে করে নদীর পারে বন্দরবাসীর বিনোদনের জন্য একটি মনোরম পরিবেশ তৈরি করতে পারি। জানিনা অন্যান্য সাংসদরা আমাদের সাথে বসবেন কী না, তবে নারায়ণগঞ্জের উন্নয়নে আমি মেয়র আইভী কে সর্বদা সহযোগীতা করবো।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here