নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: আসন্ন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট নির্বাচন ও নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের জন্য জাতীয়তাবাদী পরিষদের পক্ষে আদালত নারায়ণগঞ্জ আদালত পাড়ায় ভোট প্রার্থণা করেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি এড. তৈমুর আলম খন্দকার ও নারায়ণগঞ্জ মহানগর মহানগর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদকসহ নারায়ণগঞ্জের বিএনপি পন্থী আইনজীবীরা।
সোমবার ( ৮ জানুয়ারী ) দুপুরে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদের প্রার্থীদের সাথে নিয়ে এই প্রচারণা চালান তারা। তবে এভাবে দলীয়ভাবে প্রচারণা করা যাবেনা বলে জনিয়েছে নির্বাচন কমিশন। সেই সাথে দুই প্যাণেলের সভাপতি প্রার্থীকে ডেকে এ বিষয়ে সাবধান করে দেয়া হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে কমিশন।


নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতি নির্বাচনের নির্বাচন কমিশনার এড. মাহবুবুর রহমান মাসুম এ বিষয়ে নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডিকে বলেন, নির্বাচনের জন্য প্রার্থীরা পারসন টু পারসন যেতে পারবে, ভোট চাইতে পারবে, কিন্তু দলীয়ভাবে মিটিং মিছিল করে প্রচারণা করতে পারবে না। নিয়মটি সব সময়ই ছিলো, কিন্তু কেউ মানতো, কেউ মানতো না। এ জন্য আমরা আজকেই দুই সভাপতি প্রার্থীকে ডেকে সাবধান করে দিয়েছি, এ ধরনের ঘটনা যেনো আর কোন দিন না ঘটে। আমরা খুব শীঘ্রই সকল প্রার্থীদের সাথে বসবো এবং এ বিষয়ে কঠোর নির্দেশনা প্রদান করবো।

সরেজমিনে সোমবার নারায়ণগঞ্জ আদালত পাড়ায় গিয়ে দেখা যায়, বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি এড. তৈমুর আলম খন্দকারের নেতৃত্বে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামালসহ নারায়ণগঞ্জ আদালত পাড়ার বিএনপি পন্থী আইনজীবীরা বিএনপি সমর্থীত প্যাণেলের প্রার্থীদের সাথে নিয়ে শোডাউন করে নির্বাচনের জন্য আইনজীবীদের কাছে ভোট প্রার্থণা করছেন।


এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক এড. জাকির হোসেন, জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী সভাপতি এড. সরকার হুমায়ুন কবীর, এড. আবদুল বারী ভূইয়া, ফোরামের সাধারণ সম্পাদক এড. খোরশেদ আলম মোল্লা, এড. বোরহানউদ্দিন সরকার, প্যাণেলের সভাপতি প্রার্থী এড. জহিরুল হক ও সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী এড. আবদুল হামিদ ভাষানীসহ প্যাণেলের প্রার্থীরা।

বিএনপি সমর্থীত প্যাণেলের পক্ষে প্রচারনা ও ভোট প্রার্থনার বিষয়টি নিশ্চিত করে নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজবীবী ফোরামের সভাপতি এড. সরকার হুমায়ুন কবীর উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, সিনেট নির্বাচনের পাশাপাশি আমরা বার নির্বাচনের জন্যও প্রচারনা চালিয়েছি এবং প্রার্থীদের জন্য ভোট প্রার্থনা করেছি।


প্রচারনা শেষে এড. তৈমুর আলম খন্দকার বলেন, খুব ভালো প্যানেল গঠন করা হয়েছে । আমি অনেক খুশি হলাম । ভয় পাওয়ার কোন অবকাশ নাই । সবাই নির্ভয়ে প্রচার প্রচারণা চালিয়ে যাও । অনেকেই আসবে লম্বা লম্বা কথা বলবে তা শুনে লাভ নাই । ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের সিনেট নির্বাচন শেষ করে আমি ২০ জানুয়ারি থেকে আপনাদের সাথে প্রচার প্রচারণায় অংশ গ্রহন করবো ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here