নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: সদর উপজেলার শীবু মার্কেট এলাকায় ওসমান গার্মেন্টসে শ্রমিক অসন্তাষের ঘটনা ঘটেছে।
রবিবার (৪ ফেব্রুয়ারী) সকালে এক শ্রমিককে গার্মেন্টস মালিক ও বহিরাগত সন্ত্রাসীরা মারধর করায় ঘটনাটি ঘটেছে বলে জানাগেছে।

ওসমান গার্মেন্টসের বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ সড়কে বিক্ষোভ মিছিল রেব করে। মিছিলটি আলীগঞ্জ শ্রমিক হলের সামনে সমাপ্ত হয়। এ সময় শ্রমিক হলে বিক্কুব্ধ শ্রমিকদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন জাতীয় শ্রমিকলীগের শ্রমিক উন্নয়ন ও কল্যান বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব কাউসার আহমেদ পলাশ। তিনি বলেন, সংগ্রাম আন্দোলন করে শ্রমিকরে দাবি আদায় করা হয়েছে। ৮ ঘন্টা ডিউটি ছাড়াও ওভার টাইমের নিয়মনীতি রয়েছে। বে-আইনি ভাবে কোন মালিক মনগড়া সিস্টেমে শ্রমিককে দিয়ে কাজ করানো যাবে না। বহিরাগত সন্ত্রাসী দিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে শ্রমিকের উপর নির্যাতন করে অবৈধ ভাবে শ্রমিক ছাটাই করার দিন শেষ। শ্রমিকের ন্যায্য অধিকারের আদায়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বতর্মান শ্রমিক বান্ধব সরকারের কঠোর নিদের্শনা রয়েছে। থানা পুলিশ ও ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশের কাছে অভিযোগ করা হয়েছে। শ্রমিককে মারধর করায় ওসমান গার্মেন্টসের মালিকের বিরুদ্ধে ফৌজদারী মামলা করা হবে। গার্মেন্টস কোন মালিকের নয়। এটি দেশে সম্পদ। আমাদের দেশে অর্থনৈতিক চালিকা শক্তি। তাই আন্দোলনের নামে কোন শিল্প প্রতিষ্ঠান ভাংচুর করা যাবে না। নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলনের মাধ্যমে আমরা দাবি আদায় করবো।

নির্যাতিত শ্রমিক সোহেল জানায়, সকাল সাড়ে দশ টায় ওসমান গার্মেন্টসের তিন জন মালিক ওসমান, হানিফ ও টিটু তাকে অফিসে ডাকায়। এ সময় মালিকরা ও তাদের ভাগনে জুট সন্ত্রাসী বাবুসহ বহিরাগত সন্ত্রাসী জোড়পূর্বক তাকে রিজাইন লেটারে স্বাক্ষর করার কথা বলে। স্বাক্ষর না করায় তাকে বেধরক মারধর করে। এক পর্যায়ে পিস্তল দেখিয়ে রিজাউনি লেটারে স্বাক্ষর করায়। এবং জুট সন্ত্রাসী বাবু, বহিরাগত সন্ত্রাসীসহ সিকিউরিটি গার্ড দিয়ে তাকে গার্মেন্টসের বাহিরে বের করে দেয়। তার উপর এ ধরনের নির্যাতনের খবর গার্মেন্টসে ছড়িয়ে পড়লে শ্রমিকরা বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। পরে তারা বিক্ষোভ মিছিল করে আলীগঞ্জে শ্রমিক নেতা কাউসার আহমেদ পলাশের ধারস্ত হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here