নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আফিুল হক হাসানের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, উশৃঙ্খল, দাঙ্গাবাজ ও অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী হিসেবে দাবি করেছেন সিদ্ধিরগঞ্জের আটি হাউজিং এলাকার মৃত হাজী আঃ রহমানের ছেলে হাজী আঃ আউয়াল (৫৫)।

মঙ্গলবার (২৩জানুয়ারী) সকাল ১১টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এসব কথা বলে হাজী আঃ আউয়াল নামের ভুক্তভোগী।

হাজী আঃ আউয়াল জানান, কাউন্সিলর আরিফুল হক হাসান এর সন্ত্রাসী বাহিনী দীর্ঘদিন যাবত তাকে হত্যা করার হুমকি দিচ্ছেন। এর কারন হিসেবে তিনি আরো জানান, তিনি সিদ্ধিরগঞ্জের হাজী ফজলুল হক মডেল হাই স্কুলএবং আটি হাউজিং এর বর্তমান সভাপতি। গত ৬জানুয়ারী তারিখে হাজী পজলুল হক মডেল হাই স্কুলে ভর্তি কার্যক্রম চলাকালীন সকাল সাড়ে ১১টার দিকে আরিফুল হক হাসানের নেতৃত্বে তার সন্ত্রাসী বাহিনীর সিদ্ধিরগঞ্জের আজিবপুর এলাকার মৃত চাঁন মিয়ার ছেলে আঃ কাইয়ূম (৪০), জামাল উদ্দিনের ছেলে নাসির উদ্দিন (৪৮), মফিজ উদ্দিন ওরফে রশিদ মুন্সীর ছেলে জাকির (২৮) মোঃ আলীর ছেলে আলমগীর (৪০) সহ অজ্ঞাত আরো ৬/৭ জন সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষকের কক্ষে প্রবেশ করে তাকে বলেন ‘তুই এই স্কুলের সভাপতি পদে থাকতে পারবি না’ আর যদি থাকিস তাহলে তোকে জীবনে শেষ করিয়া ফেরিবো। তিনি এর প্রতিবাদ করলে তাকে মারধর করেন সন্ত্রাসীরা। স্কুলের পাশ্ববর্তী তার বাড়ি হওয়ায় তার ডাক চিৎকারে তার বড় ছেলে কামরুজ্জামান (২৮) এসে বাধা দিলে এলোপাথারী ভাবে তাকেও মারপিট করলে সে মাটিতে লুটাই পড়লে আঃ কাইয়ূম তার তলপেটে স্বজোরো লাথি মারতে থাকে। এ সময় বাকী সন্ত্রাসীরা স্কুলের আলমারীতে রাখা ভর্তি ফি’র ১৫হাজার টাকা এবং তার ব্যাবসায়ীক কাজের ৪০ হাজার টাকা নিয়ে চলে যায়। পরবতৃীতে তার ছেলে বাসায় গিয়ে প্রশাব করলে তার পুরুসঙ্গ দিয়ে রক্ত বের হতে থাকে। চিকিৎসার জন্য তাকে দ্রæত ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে ভতি করানো হয়। ডাক্তাররা তাকে জানায় তার ছেলের অবস্থা আশঙ্কজনক হওয়ায় তার একটি কিডনি কাটিয়া বাদ দিতে হবে। বর্তমানে তার ছেলে স্কয়ার হাসপাতালের ১৩ তলার ১৪১নং কেবিনে ভর্তিরত আছেন।

তিনি আরো জানান, আটি মৌজার সিএস ও এস এ ২৬০নং দাগের দুর্জর টাওয়ারের নিচ তলায় তার তিনটি দোকান জোর পূর্বক দখল করে ৪নং ওয়ার্ডের অস্থায়ী কার্যালয় লিখে রেখেছেন। এ ঘটনায় গত ৮ জানুয়ারী সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় তিনি বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।। মামলা নং-১৭। কাউন্সিলর আরিফুল হক হাসান প্রভাবশালী হওয়ায় তার সন্ত্রাসী বাহিনী তাকে ও তার পরিবারকে প্রতিনিয়তই হুমকি দিচ্ছেন। আরিফুল হক হাসান ভয়ঙ্কর প্রকৃতির লোক হওয়ায় এলাকায় তার বিরুদ্ধে কেউ কথা বলার সাহস পায় না। এ বিষয়ে তিনি প্রশাসনের সাহায্য কামনা করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here