নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: ফতুল্লা থানার নাশকতার মামলায় প্রায় দেড় মাস যাবত কারাগারে আটক কুতুবপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী আমিন হোসেনের বাসায় গিয়ে তার পরিবারকে শান্তনা দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপি’র সিনিয়র সহ সভাপতি এড. সাখাওয়াত হোসেন খানসহ নারায়ণগঞ্জ বিএনপি’র নেতৃবৃন্দ।
শুক্রবার (২৩ মার্চ) সকালে কাজী আমিনের দেলপাড়াস্থ বাসভবনে যান তারা।

এ সময় নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপি’র সিনিয়র সহ সভাপতি এড. সাখাওয়াত হোসেন খান বলেন, ‘বর্তমান অবৈধ সরকার বিএনপি’র চেয়ারপার্সণ ও সাবেক প্রধাণমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে জেলে আটকে রেখে ২০১৪ সালের মতো একটি সাজানো নির্বাচনের পায়তারা করছে। আর তাই বিচার বিভাগের উপর প্রভাব খাটিয়ে খালেদা জিয়ার মুক্তি প্রকৃয়াকে বিলম্বিত করছে। খালেদা জিয়াকে জেলে বন্দি করে দেশে সরকার বিরোধী আন্দোলন সংগ্রাম নিশ্চিহ্ন করে দেয়ার জন্য সকল প্রতিবাদী মুখগুলোকে গ্রেফতার করা হচ্ছে। সরকারের রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়ে কুতুবপুর ইউনয়ন বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী আমিন হোসেন এখন কারাগারে বন্দি আছেন। আমরা তার জামিনের জন্য উচ্চ আদালতে যাবো।’

তিনি আরো বলেন, সরকারের এই ষড়যন্ত্রের ফল শুভ হবে না, এর ফলে সরকারের পায়ের নীচ থেকে মাটি সরে যাচ্ছে। দেশের আপামর জনগন এই সরকারের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠছে এবং যে কোন সময় তা গন বিস্ফোরণে রূপ নেবে। জনগনের প্রতিরোধের মুখে সরকার খালেদা জিয়াসহ সকল কারাবন্দি বিএনপি নেতাকর্মীদের মুক্তি দিতে বাধ্য হবে এবং একটি অবাধ সুষ্ঠ নিরপেক্ষ নির্বাচনে ভোট বিপ্লবের মাধ্যমে খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে দেশের মানুষের ভোট ও ভাতের অধিকার পুনরুদ্ধার করা হবে।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, ফতুল্লা থানা বিএনপি’র সাবেক সভাপতি অধ্যাপক খন্দকার মনিরুল ইসলাম, নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপি’র সহ সাংগঠনিক সম্পাদক উজ্জল হোসাইন, রুহুল আমিন শিকদার, কেন্দ্রীয় যুবদল নেতা সাদেকুর রহমান, কুতুবপুর ইউনয়ন বিএনপি’র সাবেক সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল হোসেন, শহীদ জিয়া আইনজীবী পরিষদের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক এড. ওমর ফারুক নয়ন, নারায়ণগঞ্জ মহানগর মৎসজীবী দলের সাধারণ সম্পাদক পারভেজ মল্লিক, ফতুল্লা থানা যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক ইসমাইল হোসেন, জেলা যুদলন নেতা ফারুক হোসেন, এড. ইউনুস আলী, আফজাল মেম্বার, ইয়াসিন সর্দার, শাহজাহান, কামালউদ্দিন, কাজী জামালউদ্দিন, নাজমূল, লিটন, এমএ হাশেম অপু প্রমূখ।

প্রসঙ্গত, গত ৬ ফেব্রুয়ারী কুতুবপুর ইউনিয়ন বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী আমিন হোসেনকে তার দেলপাড়াস্থ বাসা থেকে ধরে নিয়ে যায় ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here