নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: মামলা হামলায় জর্জরিত নারায়ণগঞ্জ বিএনপি’র নেতাকর্মীদের এবং তাদের পরিবারের কোন খোঁজ খবর নিচ্ছেন না নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপি’র সভাপতি এড. আবুল কালাম, এমনকি একজন আইনজীবী হিসেবে আদালতে আইনী সহায়তার জন্য তাকে পাশে পাচ্ছেন না নেতাকর্মীরা। আর তাই নারায়ণগঞ্জ বিএনপি’র শীর্ষ এই নেতার প্রতি ক্ষুব্দ হয়ে উঠছেন মামলার বেড়াজালে আষ্টেপৃষ্ঠে জর্জরিত ত্যাগী নেতাকর্মীরা।
দীর্ঘ প্রায় এক যুগ ক্ষমতার বাইরে থাকা বিএনপি’র নেতাকর্মীরা সবচেয়ে দূর্যোগময় সময় পার করছেন এখন। দলীয় চেয়ারপার্সণ বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ ট্রাষ্ট দূর্নীতি মামলার রায় ঘোষনার দিন নির্ধারণের পর থেকে নারায়ণগঞ্জের সাতটি থানায় ১৩টি মামলায় আসামী হয়ে প্রায় সহ¯্রাধীক নেতাকর্মী যাযাবর জীবন যাপণ করছেন, কারাগারে আটক আছেন প্রায় শতাধিক।

নেতাকর্মীদের এসব মামলা উচ্চ আদালতে দেখভাল করছেন সাবেক জেলা বিএনপি’র সভাপতি এড. তৈমূর আলম খন্দকার আর নারায়ণগঞ্জের আদালতে নেতাকর্মীদের জন্য আইনী লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন মহানগর বিএনপি’র সিনিয়র সহ সভাপতি এড. সাখাওয়াত হোসেন খান। এমনকি কারাগারে বন্দি নেতাকর্মীদের পরিবার পরিজনদের খোঁজ খবরও নিচ্ছেন তারা, করছেন প্রয়োজনীয় সহায়তা।

কিন্তু নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপি’র সভাপতি এড. আবুল কালাম একজন সিনিয়র আইনজীবী হয়েও কোন নেতাকর্মীর জন্য একদিনও আদালতে দাঁড়াননি, নেননি নেতাকর্মীদের মামলার কোন খোঁজ খবর। এতে করে ক্ষোভ জমতে শুরু করেছে নারায়ণগঞ্জ বিএনপি’র নেতাকর্মীদের মনে। তৈমূর কিংবা সাখাওয়াতের মতো আবুল কালামকেও তারা তাদের মামলায় আইনজীবী হিসেবে পাশে চান। অথচ এড. আবুল কালাম তার গৃহবন্দি অবস্থা থেকে বেরই হচ্ছেন না। নেতাকর্মীদের কাছে সবচেয়ে অবাক করা বিষয় হলো, নারায়ণগঞ্জ বিএনপি’র শীর্ষ থেকে তৃণমূল পর্যন্ত প্রায় হাজার খানেক নেতাকর্মী এ যাত্রায় বিভিন্ন মামলায় আসামী হলেও এড. আবুল কালাম রয়ে গেছেন ধরা ছোঁয়ার বাইরে।

নারায়ণগঞ্জ বিএনপি’র ক্ষুব্দ এক তৃণমূল নেতা আক্ষেপের সুরে বলেন, একজন সিনিয়র নেতা হিসেবে এড. আবুল কালামের উচিত ছিলো আমাদের মতো তৃণমূলের মামলার খোঁজ খবর নেওয়া এবং আদালতে আমাদের জন্য আইনী সহায়তা প্রদান করা, যা একাধারে করে যাচ্ছেন এড. তৈমূর আলম খন্দকার ও এড. সাখাওয়াত হোসেন খান। কিন্তু আমাদের দূর্ভাগ্য আমরা আবুল কালামের মতো একজন সিনিয়র আইনজীবীর সহায়তা থেকে বঞ্চিত হলাম।

অপর এক কর্মী বলেন, তিনি আমাদের জন্য আইনী সহায়তা করবেন কি, তিনি নিজেইতো মামলা থেকে বাঁচতে সরকারী দলের এমপিদের সাথে আতাঁত করে চলেছেন। আর তাইতো আমাদের মতো ক্ষুদ্র কর্মীরাও একাধিক মামলার আসামী হয়ে যাযাবর জীবন যাপণ করছি আর তিনি নাকে তেল দিয়ে এসি রুমে আরাম করছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here