নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: মহাষষ্ঠীতে স্বায়ংকালে দেবীর বোধন, অধিবাসের মধ্য দিয়ে নগরীর মন্ডপে মন্ডপে মা দূর্গাকে জানানো হয়েছে আবাহন। ধূপ প্রদীপের ধোঁয়া, ঢাকের বাদ্যি, কাঁসর ঘণ্টায় ভরে উঠেছে দূর্গা মন্ডপ।
মঙ্গলবার (২৬ সেপ্টেম্বর) মহাষষ্ঠীর দ্বিতীয় দিনে জেলা বেশীর ভাগ পূজা মন্ডপেই সন্ধ্যার পর বিল্ববৃক্ষের নীচে বোধনের মাধ্যমে স্বপরিবারে মা দূর্গাকে আবাহন জানানো হয়। অধিবাসের পর মহাষষ্ঠীর রাতে এই বেল তলায়ই রাত কাটাবেন মা দূর্গা।

বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর) মহাসপ্তমীর ভোর ৷ আজ নবপত্রিকা স্নানের মাধ্যমে শুরু হবে দেবীর পূজো। সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে সপ্তমীর পূজোর রীতি মেনে গঙ্গায় কলাবউ স্নানের পর শুরু হবে মা দূর্গার আরাধনা। এরপর দেবী ঘট বসিয়ে সঙ্কল্পের পালা। ফলনের দেবী হিসেবে মহা-সপ্তমীতে মা দূর্গার পুজো হয়। অন্যান্য আরও ৮টি গাছের সাথে বেল গাছের শাখা কেটে রাখা হয়। ষষ্ঠীর রাতে এই বেল গাছের শাখাতেই দেবী নেমে আসেন ও সারা রাত বিশ্রাম নিয়েছেন। এই নয়টি গাছের শাখাকে স্নান করিয়ে পূজোর জায়গায় নিয়ে আসা হবে এবং এর পরেই মাটির প্রতিমায় হবে প্রাণ প্রতিষ্ঠা।

নিতাইগঞ্জ শ্রীশ্রী বলদেব জিউর আখড়া ও শিব মন্দির প্রাঙ্গনের পুরোহিত শ্রী পঙ্কজ চক্রবর্তী জানান, বুধবার মহাসপ্তমীর দিন সকাল ৭ টায় পূজা শুরু হবে। দুপুর ১ টায় মায়ের চরণে পুষ্পাঞ্জলী প্রদানের ব্যস্থা করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here