নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: বাংলাদেশে জঙ্গিবাদের মূলে রয়েছে ব্লগার আর কিছু সংখ্যক সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা বলে মন্তব্য করেছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ¦ একেএম শামীম ওসমান।
রবিবার (১৪ মে) সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইন শৃংখলা কমিটির মাসিক সভায় তিনি এই মন্তব্য করেন।

শামীম ওসমান বলেন, এদেশে জঙ্গিবাদের মূলে রয়েছে ব্লগার আর কিছু সংখ্যক সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা। এরা বিভিন্ন উস্কানীমূলক লেখার মাধ্যমে শিক্ষিত যুব সমাজকে বিপথে চালিত করছে এবং মানুষের আবেগকে আঘাত করছে। নারায়ণগঞ্জেও এ ধরনের একটা চক্র দ্রুত সক্রিয় হয়ে উঠছে এবং খুব শীঘ্রই নারায়ণগঞ্জে চরম আকার ধারন করবে বলে আমার আশংকা। তারা একটা সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে। আর তাই এদের প্রতিরোধে অবিলম্বে ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে।

সাংসদ শামীম ওসমান অভিযোগ করে বলেন, নারায়ণগঞ্জে ব্যাঙের ছাতার মতো পত্রিকা আর অনলাইন গজিয়ে উঠছে। নারায়ণগঞ্জের ৯০ ভাগ পত্রিকা আর অনলাইন বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন না করে মানুষের চরিত্র হরণ করছে। তাই এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনের সময় এসেছে। নারায়ণগঞ্জের একটি পত্রিকার প্রধাণ হরকাতুল মুজাহিদের যুব প্রধাণ হিসেবে নিয়োজিত ছিলেন। ২০১৪ সালে বিএনপি জামাতের আগুন সন্ত্রাসের সময় একটি পত্রিকার সাংবাদিককে গাড়িতে আগুন দেওয়ার সময় হাতেনাতে গ্রেফতার করা হয়। সে সাংবাদিক স্বীকার করে সে কোন পত্রিকায় কাজ করে। এ ঘটনায় সে পত্রিকাকে আড়াল করতে একটা মহল বিশাল অংকের বাজেট বরাদ্দ করে। এবং সে ঘটনার পর থেকে সেই পত্রিকা সাদা-কালো থেকে রঙিণ হয়ে যায়।

তিনি আরো বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে প্রশাসনের কোন উদ্যোগই কাজে আসছে না, এর কারন মাদক মামলার আসামীরা খুব সহজেই জামিনে বের হয়ে যাচ্ছে। জামিনে বের হয়ে তারা আবার মাদক ব্যবসা আরম্ভ করছে। মাদক মামলার আসামীরা যাতে জামিন না পায়, সে ব্যাপারে দৃষ্টি দেয়া উচিত।

নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার মইনুল হক বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। গত মাসে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে ২৫০জন আসামীকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেয়া হয়েছে। মামলা দেয়া হয়েছে দুইশ’র মতো। এ সময়ে আড়াই কোটি টাকার মাদক জব্দ করা হয়েছে। মাদকের কারনে বিভিন্ন অপরাধ সংগঠিত হচ্ছে। কিছুদিন আগে এক মাদকাসক্ত তার স্ত্রীকে খুন করে নিজে আত্মহত্যা করেছে। তাই মাদকের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান আরো জোরদার হচ্ছে। কোন মাদকসেবীকে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স দেয়া হবে না।

তিনি আরো বলেন, আড়াইহাজার ও সোনারগাঁ কেন্দ্রিক তিনটি ডাকাত দল সক্রিয় হয়ে উঠেছে। আমরা তাদের সনাক্ত করতে পেরেছি। খুব শীঘ্রই তাদেরকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হবো বলে বিশ^াস করি।

এসপি আরো বলেন, জঙ্গিদের কিছু কিছু লক্ষণ রয়েছে। যেমন তারা খুব দ্রুত বাসা পাল্টায়। কোন বাসায় তারা ২/৩ মাসের বেশী থাকে না। প্রতিবেশীদের সাথে কোন সম্পর্ক রাখে না। দরজা জানালা বন্ধ কওে রাখে। তাই আমরা এসব লক্ষণ সম্পর্কে সাধারণ মানুষকে সচেতন করতে লিফলেট বিতরণ করছি। তাছাড়া সন্দেহভাজনদের খুঁজতে প্রতিটি বাড়িতে তল্লাশী চালানো হচ্ছে। নারায়ণগঞ্জে জঙ্গিদের ঘাঁটি হতে দেয়া হবে না। নারায়ণগঞ্জের মানুষকে শান্তিতে না রাখতে পারলেও স্বস্তিতে রাখতে পারবো। নারায়ণগঞ্জের পত্রিকাগুলো নিয়ে কাজ করা শুরু করে দিয়েছি। এটা খুবই দীর্ঘমেয়াদী কার্যক্রম। তাই লম্বা সময় নিয়ে করতে হবে।


এ এছাড়াও সভায় আসন্ন রমজানে সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা, ফুটপাতের হকার, যানজট ও দ্রব্যমূল্য নিয়েও আলোচনা হয়।

জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়ার সভাপতিত্বে আইনশৃংখলা কমিটির মাসিক সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, কমিটির উপদেষ্টা ও সংরক্ষিত নারী আসনের সাংসদ এড. হোসনে আরা বাবলী, নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগারের জেল সুপার সুভাষ চন্দ্র, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো: জসীম উদ্দিন, নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পিপি এড. ওয়াজেদ আলী খোকন, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এড. আবুল কালাম আজাদ বিশ^াস, সদর ইউএনও তাসনীম জেবিন বিনতে শেখ, বন্দর ইউএনও মৌসুমী হাবিব, নারায়ণগঞ্জ ১’শ শয্যা হাসপাতালের আরএমও ডা: আসাদুজ্জামান, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্র অধিদপ্তর জেলা উপ-পরিচালক বিপ্লব কুমার মোদক, জেলা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক মো: মোস্তাফিজুর রহমান প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here