নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নাসিক কাউন্সিলর শারমিন হাবিব বিন্নি বলেছেন, ‘একজন শিশুর মানসিক বিকাশে পুষ্টিকর খাবারের বিকল্প নেই। কিন্তু অর্থাভাবে অনেক পরিবারই তাদের সন্তানকে পুষ্টিকর খাবার খাওয়াতে পারেন না। এতে করে ওই শিশু পুষ্টিহীনতার মধ্য দিয়ে বেড়ে উঠে। এই ভাতা পাওয়ার পর ওই সকল পরিবারগুলো খুব সহজেই তাদের সন্তানকে পুষ্টিকর খাবার কিনে খাওয়াতে পারবেন। ফলে কোন শিশুই আর পুষ্টিহীনতায় থাকবে না।’

মহিলা ও শিশু বিষয়ক সরকারি অধিদপ্তরের উদ্যোগে দেশব্যপী এক থেকে দেড় বছর বয়সী দুগ্ধজাত শিশুদের মাঝে সরকারি ভাতা প্রদান করা হয়েছে। এরই অংশ হিসেবে সোমবার (৩০ এপ্রিল) বিকেলে নাসিক ১৩, ১৪, ১৫নং ওয়ার্ডের ৩০জন দুগ্ধজাত শিশুর মায়েদের হাতে ভাতা প্রদান কালে তিনি এসব কথা বলেন। প্রতি ৬ মাসে ৩ হাজার টাকা করে সর্বমোট ৪ বার এই সরকারি ভাতা পাবেন এসকল মায়েরা।

বিন্নি আরো বলেন, ‘একজন নারী হয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনা অপর নারীর দুঃখ বুঝেন। তাই তো নারীদের উন্নয়নে তিনি অবিস্মরণীয় ভূমিকা রেখে চলেছেন। এসময় তিনি সরকারের এই মহতি উদ্যোগের জন্য শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। পাশাপাশি এই ভাতার মেয়াদ যেন আর একটু দীর্ঘ করা হয়, সরকারের কাছে সেই কামনা করছি।’

এদিকে ভাতা নিতে আসা উপস্থিত অনকেই সরকারের এই মহতি উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। তারা বলেন, শিশুদের মানসিক বিকাশে বেড়ে উঠতে সরকারের এই মহতি উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসনীয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here