নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমায়ের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত ও ষড়যন্ত্র মূলক সাজা ঘোষনার প্রতিবাদে শহর ও বন্দরে প্রতিবাদ মিছিল করেছে নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের নেতাকর্মীরা। রায় ঘোষনার পরপরই বন্দরে ও শহরে নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে।

বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারী) বিকেলে বন্দরে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২৪ ও ২৫ নং ওয়ার্ড ঘুরে এসিআই মিল গেটে এসে মিছিলটি শেষ হয়।এ ছাড়া নারায়ণগঞ্জ সদরের ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ সড়কের জামতলায় মহানগর যুবদল নেতাকর্মী মিছিল শুরু করলে জামতলা এলাকায় পুলিশ হামলা করে মিছিলটি ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

প্রতিবাদ মিছিল শুরুর পূর্বে মহানগর যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক সানোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত পথ সভায় নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের আহবায়ক মাকছুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমায়ের বিরুদ্ধে পরিকল্পিত সাজা দিয়ে প্রমান হয়েছে আওয়ামী লীগ আবারো বিনা নির্বাচনে ক্ষমতায় থাকতে চায়।তারা দেশে এক দলীয় শাষন কায়েমের জন্য এই রায় সৃজন করেছেন।এই রায়ের মাধ্যমে বাংলাদেশে গনতন্ত্রের কবর রচিত হয়েছে।দেশবাসী এই প্রতিহিংসার রায় মানবে না,ইনশাল্লাহ।আমাদের মা যেহেতু জেলে থাকবে,আমরা আর বসে থাকতে পারি না।আমরাও প্রতিবাদ জানিয়ে স্বেচ্ছায় গ্রেফতার হয়ে কারাগারে যেতে প্রস্তুত রয়েছি।

তিনি সরকারের নিপীড়ন পাক হানাদারের কথা মনে করিয়ে দেয় বলে নেতাকর্মীদের অনির্বাচিত সরকারের বিরুদ্ধে পাড়া মহল্লা থেকে শুরু করে রাজপথে পর্যন্ত অহিংস ও শান্তিপূর্ন গণ প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহবান জানান।তিনি সরকারী দলের ফাদে পা না দিতে সর্তক থাকার অনুরোধ জানান।

খোরশেদ আরো বলেন,সরকারকে মনে রাখতে হবে এই সরকারই শেষ সরকার নয়। তিনি নারায়ণগঞ্জ,সিদ্ধিরগঞ্জ,রুপগঞ্জ,ফতুল্লা,সোনারগায়ে ভৌতিক মামলায় নেতাকর্মীদের আসামী করা ও হয়রানীর তীব্র নিন্দা জানান।অবিলম্বে নজরুল ইসলাম আজাদ,্এড.সাখাওয়াত খান,মাসুকুল ইসলাম রাজীব,মহানগর যুবদল নেতা ইকবাল হোসেন,কাউন্সিলার ইস্্রাফিল, কাউন্সিলার কামরুজ্জান বাবুল.এড.আনোয়ার প্রধান,বাবুল প্রধান,ডাঃশাহীন.মোহাম্মদ হোসেন কাজল,মেয়র বাদশাহ সহ গ্রেফতারকৃত সকল নেতাকর্মীর মুক্তি দাবী করে বলেন, মনে রাখতে হবে এই সরকারই শেষ সরকার নয়।

বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিলে উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক সানোয়ার হোসেন, যুগ্ম আহবায়ক আনোয়ার হোসেন আনু, আক্তার হোসেন খোকন শাহ, জুয়েল রানা, সাগর প্রধান,বন্দর থানা যুবদলের সভাপতি আমির হোসেন,সহ-সভাপতি ফিরোজ আহম্মেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আলী নওশাদ তুষার, বন্দর উপজেলা যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি নজরুল ইসলাম.সাধারন সম্পাদক শহীদুল ইসলাম রিপন সহ কয়েকশত নেতাকর্মী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here