নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: বহুল আলোচিত নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের প্যানেল মেয়র নির্বাচন বুধবার। সিটি নির্বাচনের প্রায় ১০ মাস পর এটি নগর ভবনে মাসিক সভা শেষে অনুষ্ঠিত হবে। অনেকদিন পর্যবেক্ষনের পর মেয়র ডা: সেলিনা হায়াত আইভী যেমন ঘোষণা করেছেন নির্বাচন করার, তেমনি নির্বাচনকে ঘিরে কাউন্সিলরদের মাঝে এতদিন চলে নানা জল্পনা-কল্পনা।
তবে নির্বাচনে পেশী শক্তি বা অর্থের বিনিময় বন্ধে প্যানেল মেয়র প্রত্যাশী কাউন্সিলরদের মেয়র কঠোর হুঁশিয়ারী দিলেও তাতে কোন কর্ণপাত করেননি একাধিক সম্ভাব্য প্রার্থীরা। ইতিমধ্যেই সংরক্ষিত নারী আসনের কাউন্সিলর আফসানা আফরোজ বিভার পক্ষে কাউন্সিলরদের মাঝে অর্থ বিতরনের উঠেছে নানা অভিযোগ, ঘটেছে মেয়র এমপির নাম ব্যবহারের মত ঘটনা।

তারপরেও বিএনপির কাউন্সিলর সংখ্যা বেশী থাকায় টানা তিন বারের নির্বাচিত ১৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদের প্যানেল মেয়র-১ হিসেবে জয়ের পথ সুগম হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু শেষ মূহুর্তে প্যানেল মেয়র-৩ নির্বাচন থেকে প্যানেল মেয়র-১ পদে নির্বাচনের প্রস্তুতি নেয়ায় এখন খোরশেদের নতুন যন্ত্রনার কারন হয়ে দাঁড়িয়েছে তারই বড় ভাই বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা এড. তৈমূর আলম খন্দকারের অনুগামী মহানগর বিএনপি নেতা হাসান আহাম্মেদের স্ত্রী নারী ১৬, ১৭ ও ১৮ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আফসানা আফরোজ বিভা।

হঠাৎ বিভার পদ পরিবর্তনের কারনে এখন আওয়ামীলীগ ও জাতীয় পার্টি সমর্থিত কাউন্সিলরদের পাশাপাশি বিএনপি সমর্থিত কাউন্সিলররা বিপাকে পড়ে গেছেন বলে জানাযায়।

তবে নাসিকের বিভিন্ন কাউন্সিলরদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, প্রায় সকল কাউন্সিলরের সাথেই খোরশেদের রয়েছে আন্তরিকতাপূর্ণ সম্পর্ক। তাছাড়া এবারের নির্বাচনে টাকার ব্যবহার না করতে মেয়র কর্তৃক হুঁশিয়ারী প্রদানের কারনে খোরশেদের নির্বাচিত হওয়ার সুযোগ আরো বেড়ে গেছে বলে মনে করেন তারা। নির্বাচনে টাকার ব্যবহার না হলে ভোটাররা তাদের পছন্দমতো প্রার্থীকে ভোট দিতে পারবে, আর তাই এবারের নির্বাচনে খোরশেদকেই এগিয়ে রাখছেন সকলে।

অপরদিকে, প্যানেল মেয়র-১ পদে আওয়ামীলীগ ও জাতীয় পার্টি সমর্থিত একাধিক কাউন্সিলর প্রার্থী হওয়ায় নির্বাচনে ভোট দেয়া নিয়ে এখন বিভক্তিতে পড়ে গেছেন এই দু’টি দলের কাউন্সিলররা।

বিশেষ করে আওয়ামীলীগের কাউন্সিলররা আছেন চরম বিপাকে। কারন, প্যানেল মেয়র-১ ও ২ পদে শামীম ওসমানের পাশাপাশি এখন মেয়র আইভীর অনুগামী প্রার্থীও প্রতিদ্বন্দীতা করছেন।

আওয়ামীলীগ পন্থী প্রার্থীদের মধ্যে প্যানেল মেয়র-১ পদে, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন ১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ওমর ফারুক, ১৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নাজমুল আলম সজল, ১৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল করিম বাবু, ২৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাইফুদ্দিন আহম্মেদ দুলাল প্রধান ও ১৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো; কবির হোসাইন প্রতিদ্বন্দীতা করবেন।

জাতীয় পার্টি পন্থী হিসেবে প্যানেল মেয়র-১ পদে, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন ১৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শফিউদ্দিন প্রধান, ২৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আফজাল হোসেন প্রতিদ্বন্দীতা করার গুঞ্জন শোনা গেলেও এক্ষেত্রে অন্যান্যদের তুলনায় শফি উদ্দিন প্রধান অনেকটা এগিয়ে রয়েছেন। কাউন্সিলরদের সাথে সু-সম্পর্ক বজায় রাখার পাশাপাশি সর্বদা হাসিমুখে সকলের পাশে থাকায় শফি প্রধানের প্রতি একটু বাড়তি দুর্বলতা রয়েছে বলে জানান, একাধিক কাউন্সিলর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here