নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নারায়ণগঞ্জের একটি গার্মেন্টসে বসে আসন ভাগাভাগির ষড়যন্ত্র প্রতিহত করার ঘোষণা দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এড. আবু হাসনাত মো: শহীদ বাদল।
মঙ্গলবার (১৭ এপ্রিল) সকাল ১০ টায় শহরের দুই নং রেল গেইটস্থ আওয়ামীলীগের কার্যালয়ে জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় তিনি বক্তব্যকালে এই ঘোষণা দেন।

ভিপি বাদল বলেন, ‘আগামী নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জের ৫টি আসনেই নৌকার প্রার্থী দেয়া হবে। সম্প্রতি একটি গার্মেন্টসে বসে নারায়ণগঞ্জের আসন ভাগাভাগি নিয়ে যে ষড়যন্ত্র হয়েছে তা প্রতিহত করা হবে। সারাদেশে এরশাদ ১০ টি আসনও পাবে না। তাই কোনক্রমেই আগামীতে জাতীয় পার্টিকে আসন ছাড় দেয়া হবে না।’

নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাইয়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় ভিপি বাদলের মুখে এমন বক্তব্য শুনে সভায় উপস্থিত অনেকেই মন্তব্য করেন, অবশেষে নারায়ণগঞ্জের আসন ইস্যুতে ভিপি বাদল প্রকাশ্যে মুখ খুললেন। অতীতে তিনি নারায়ণগঞ্জের সকল আসনেই নৌকার প্রার্থী দেয়ার দাবী জানালেও জাতীয় পার্টির বিরুদ্ধে তেমন কিছুই বলেননি। কিন্তু এবার যা বললেন, তা রীতিমত জাতীয় পার্টির হাইকমান্ড থেকে নারায়ণগঞ্জ-৫ (সদর-বন্দর) আসনের এমপি সেলিম ওসমানকে ইঙ্গিত করেই বলেছেন ভিপি বাদল বলে দাবী করেন একাধিক নেতা।

কারন, সম্প্রতি আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টির ভষিষ্যৎ কর্মপন্থা নিয়ে নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান উইজডম এ্যাটায়ার্সে আলোচনা সভার আয়োজন করেছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের জাতীয় পার্টির এমপি সেলিম ওসমান। আর এই সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদসহ অন্যান্যদের মধ্যে জাতীয় পার্টির মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, যুগ্ম মহাসচিব ও নারায়ণগঞ্জ-৩ আসনের জাতীয় পার্টির এমপি আলহাজ¦ লিয়াকত হোসেন খোকাসহ নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টির নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

আর এই সভাতেই সেলিম ওসমান প্রয়োজনে আগামীতে নারায়ণগঞ্জের ৫টি আসনেই জাতীয় পার্টির প্রার্থী দেয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন। যা কিনা নারায়ণগঞ্জের রাজনীতিতে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিনত হয়েছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here