নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: ঝুট সন্ত্রাসীদের অব্যাহত হুমকির প্রেক্ষিতে থানায় এবং বিকেএমইএ’তে অভিযোগ করেও কোন প্রতিকার না পাওয়ায় চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ লাইনস্ সংলগ্ন ৭৫ কেতাবনগরস্থ এ এন এস স্টাইল লিমিটেডের পরিচালক মো: রাসেল।
শনিবার (২৪ ফেব্রুয়ারী) চাঁদার দাবীতে হুমকি দেয়া সন্ত্রাসীরা পুনরায় উক্ত গার্মেন্টে জোর পূর্বক ঝুট নামানোর চেষ্টা করে। কিন্তু সংবাদ পেয়ে শিল্প পুলিশ ঘটনাস্থলে আসলেও ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের সহযোগিতা না পাওয়ায় ঝুট সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নিতে পারেননি বলে অভিযোগ করেন গার্মেন্ট ব্যবসায়ী।

জানাগেছে, দীর্ঘবছর যাবত নির্বিঘেœ ব্যবসা করে আসলেও সম্প্রতি মাসদাইর শেরে বাংলা রোড এলাকার চিহিৃত ঝুট সন্ত্রাসী ও তেরা সিদ্দিকের পুত্র যুবদল নেতা শামীম (৩৫), কবরস্থান এলাকার জব্বর মিয়ার পুত্র আলী (৩০) ও পাকাপুল এলাকার আলম (৩২) গত ১৫ ফেব্রুয়ারী গার্মেন্ট মালিক রাসেলকে ফোন করে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবী করে। অন্যথায় তার গার্মেন্ট থেকে কোন প্রকার মালামাল ঝুট সন্ত্রাসীরা বিক্রি করতে দিবেনা।

তখন গার্মেন্ট ব্যবসায়ী রাসেল সন্ত্রাসীদের কোন প্রকার চাঁদা দিতে অসম্মতি জানালে ঝুট সন্ত্রাসী যুবদল নেতা শামীম রাসেলকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়। এমনকি সন্ত্রাসীরা রাসেলের বাস ভবনের নীচে গিয়েও নানা ধরনের অশ্লীল ভাষায় গালাগাল করে।

এরপর গত ১৭ ফেব্রুয়ারী এই ঘটনায় ফতুল্লা মডেল থানায় নারায়ণগঞ্জ পুলিশ লাইন্স সংলগ্ন ৭৫ কেতাবনগরস্থ এ এন এস স্টাইল লিমিটেডের পরিচালক মো: রাসেল ঝুট সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়েরের পাশাপাশি ঝুট নিয়ে সমস্যার সমাধানের জন্য বিকেএমইএ’তেও আবেদন করা পরেও কোন প্রতিকার পাননি।

ফলশ্রুতিতে শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী বিকেলে উক্ত ঝুট সন্ত্রাসীরা পুনরায় রাসেলের গার্মেন্টে গিয়ে ঝুট বিক্রিতে বাঁধা দেয়। এখন নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে এই গার্মেন্ট ব্যবসায়ী বলে জানান।

এদিকে সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে আসা শিল্প পুলিশের কর্মকর্তা অমিত বড়–য়া জানান, ‘ঝুট সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

গার্মেন্ট ব্যবসায়ীকে হুমকির বিষয়ে সত্যতা প্রকাশ করে অভিযোগের তদন্তকারী ফতুল্লা মডেল থানার এসআই শাফিউল আলম জানান, ‘অভিযুক্তদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here