নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: প্রার্থী ঘোষণা দিয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ‘বিবেক বর্জিত’ কাজ করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাবেক সাংসদ আলহাজ¦ গিয়াস উদ্দিন আহম্মেদ। পাশাপাশি বিএনপির কেন্দ্রীয় আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদকে ‘অর্বাচীন’ হিসেবে আখ্যায়িতও করেছেন তিনি।
গত ১৭ সেপ্টেম্বর বিকেলে ফতুল্লায় শাহ আলমের উদ্যোগে আয়োজিত ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্যকালে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী হিসেবে ফতুল্লা থানা বিএনপির সভাপতি শাহ আলমের নাম ঘোষণা করেন।

যা নিয়ে তৃণমূলে গয়েশ্বর চন্দ্র রায়কে নিয়ে তুমুল সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। বিশেষ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে গয়েশ্বর চন্দ্র বিএনপির চেয়ারপার্সন কিনা, তাও প্রশ্ন করেন অনেকে।

তন্মধ্যে গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের মুখে প্রার্থী ঘোষণার বিষয়ে নিজের প্রতিক্রিয়া সাংবাদিকদের কাছে ব্যক্ত করেছেন উক্ত আসনের সাবেক এমপি আলহাজ¦ গিয়াস উদ্দিন আহম্মেদ।

তিনি বলেন, ‘গয়েশ্বর চন্দ্র ফতুল্লায় এসে প্রার্থী হিসেবে কারো নাম ঘোষণা করেছেন কিনা, তাতে আমার সন্দেহ রয়েছে। কেননা, তিনি একজন বিবেক সম্পন্ন জাতীয় নেতা। আর যদি সত্যিকার অর্থেই তিনি কারো নাম ঘোষণা করে থাকেন তাহলে আমি বলবো তিনি অবশ্যই ‘বিবেক বর্জিত’ কাজ করেছেন।’
কারন হিসেবে গিয়াস উদ্দিন বলেন, ‘বিএনপির প্রার্থী ঘোষণার ক্ষেত্রে একক নেতৃত্ব যদি গয়েশ্বর রায়ের কাছে থাকতো, তাহলে তিনি কারো নাম ঘোষণা করতে পারতেন। কিন্তু দলের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী দলীয় প্রার্থী ঘোষণা করবে সংসদীয় বোর্ড। নির্বাচনের প্রাক্কালে সংসদীয় বোর্ডের পক্ষ থেকে সম্ভাব্য প্রার্থীদের কাছ থেকে দরখাস্ত আহবান করা হবে। এরপর বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানসহ সিনিয়র নেতৃবৃন্দরা সিদ্ধান্ত নিয়ে দলীয় প্রার্থীর নাম ঘোষণা করবেন।’

গিয়াস উদ্দিন আরো বলেন, ‘দেশে আদৌ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে কিনা এনিয়ে আমাদের সন্দিহান রয়েছে। এজন্য দলীয় নেতাকর্মীদের এখন ঐক্যবদ্ধ করে জনগণের কাছে বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকারের দু:শাসনের চিত্র তুলে ধরতে হবে। কিন্তু যেখানে নির্বাচনের পরিবেশ এখনো তৈরী হয়নি, সেখানে কোন কেন্দ্রীয় নেতা বাণিজ্যের জন্য নারায়ণগঞ্জে এসে প্রার্থী হিসেবে কারো নাম ঘোষণা করে দিবেন, এটা তো বিবেক বর্জিত কাজ। এতে করে দলের মধ্যে আরো বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘যদি গয়েশ্বর রায় সত্যিকার অর্থেই প্রার্থী হিসেবে কারো নাম ঘোষণা করে থাকেন, তাহলে আমি এর তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাই।’

অপরদিকে, ‘শাহআলমের বাড়ীতে আজাদ যাওয়ায় নকি গিয়াস উদ্দিন দু:শ্চিন্তায় পড়েছেন’ কয়েকটি গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের প্রেক্ষিতে আলহাজ¦ গিয়স উদ্দিন আহম্মেদ বলেন, ‘রাজনীতিতে নজরুল ইসলাম আজাদ হচ্ছে শিশু, একজন অর্বাচীন। আমি যখন রাজনীতি শুরু করি, তখন আজাদের জন্মই হয় নাই।’

তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘নজরুল ইসলাম আজাদ জিয়া পরিবারের নাম ব্যবহার করে সোনারগাঁয়ে বাণিজ্য করে। তার মত লোকেদের অনুগত হয়ে নারায়ণগঞ্জের নেতারা তার কাছে দৌঁড়ে গিয়ে নারায়ণগঞ্জের মানসম্মান ধুলিসাৎ করে দিচ্ছে।’

গিয়াস উদ্দিন বলেন, ‘সেদিনকার ছেলে আজাদের ব্যাপারে আমার তো ভাবারই সময় নাই। আর কারো মতে তাকে নিয়ে আমি নই, বরং যারা বলে, তারাই দুশ্চিন্তায় পড়ে গেছেন।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here