নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি ঃ নারায়ণগঞ্জ সদর থানার গোগনগর মসিনাবন্দ এলাকায় ইকবাল হোসেন (৪৫) ও তার ভাতিজা হিমু (৩০) কে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা। এ ঘটনায় গুরুতর আহত ইকবাল হোসেন এর স্ত্রী এড. রুমানা খানম বাদী হয়ে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। শুক্রবার (১৪ এপ্রিল) বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।
মামলার অভিযুক্তরা হলেন, স্থানীয় এলাকার মৃত কালু মন্ডলের ছেলে নাসির মন্ডল (৫৫), তার স্ত্রী নার্গিস বেগম (৩৫), নূর ইসলাম (৬০) অলিউল¬াহ (৪০),মৃত মাহি মন্ডলের ছেলে সোহেল মন্ডল (৩৫) সহ অজ্ঞাতনামা আরো ৫/৭জন।
মামলার বিবরনে এড. রোমানা খানম জানান, বিবাদী নাসির উদ্দিনের বাড়িতে কিছুদিন পর পর ভাড়াটিয়া পরিবর্তন হয়। তিনি পাশের বাড়িতে থাকেন। ভাড়াটিয়া পরিবর্তনের বিষয়টি সন্দেহ জনক মনে হলে গত ১৪ এপ্রিল বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে বিবাদীর বাড়ির সামনের রাস্তায় দাড়াই। কেন কিছুদিন পর পর তার ভাড়ির ভাড়াটিয়া পরিবর্তন হচ্ছে এবং সরকারের নির্দেশ মোতাবেক ওই সকল ভাড়াটিয়াদের ন্যাশনাল আইডি কার্ড তিনি সংগ্রহ করেছেন কিনা জানতে চাইলে উক্ত বিবাদীরা  আমার স্বামী ইকবাল হোসেনের উপর অতর্কিতভাবে ধারালো অস্ত্র ও দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কোন কিছু বোঝার আগে মাথায় ও শীরের বিভিন্ন জায়গায় আঘাত করতে থাকে। তার স্বামীর চিৎকারে তার ভাতিজা হিমু এসে তাদেরকে বাধা দিলে তাকেও এলোপাথারীভাবে মারতে থাকে সন্ত্রাসীরা। এ সময় তাদের চিৎকারে এলাকার লোকজন এলে পালিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। বর্তমানে তার স্বামী ইকবাল হাসেন ১’শ শয্যা বিশিষ্ট নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি আছেন।  
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল পি,এস,আই জামাল জানান, রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করা হয়েছে। আশপাশের লোকজনের সাথে বিষয়টি নিয়ে কথা হয়েছে। আসামীর আঘাত গুরুতর।
নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আসাদুজ্জামান মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, আসামীদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here