নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সাংসদ এড. আবু কালাম বলেন, সরকার দেশে গ্যাসের চাহিদা পুরন করতে পারছে না অথচ বিদেশে গ্যাস রপ্তানি করার পাঁয়তারা করছে, পাশা পাশি বিদ্যুৎ সঙ্কট এখন মানুষের প্রধান সমস্যা হলেও সঠিক ভাবে সেবা প্রদান না করে এর মূল্য বৃদ্ধি করে যাচ্ছে।
বৃহস্পতিবার (৫ অক্টোবর)বন্দর থানাধীন মদনগঞ্জ ওয়েল ফেয়ার এসোসিয়েশন কমিউনিটি সেন্টারে নাসিক ১৯নং ওর্য়াড বিএনপির উদ্যোগে নুতন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কমর্সূচীর উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। বন্দর পৌর বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি জসিম উদ্দিন খানের সভাপতিত্বে এ সময় প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক বন্দর পৌর বিএনপির সহ-সভাপতি পিয়ার জাহান, বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও বক্তব্য রাখেন, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল, সহ-সভাপতি আতাউর রহমান মুকুল, হাজী নুরু উদ্দিন সহ মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি এড. জাকির হোসেন, এড. আবু আল ইউসুফ খান টিপু।

এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, দেশের গনতন্ত্র আজ বিলিন হয়ে যাচ্ছে, তাদের কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে কথা বলেই নেতা কর্মীদেরকে পুলিশ দিয়ে হয়রানী করছে। দেশের মানুষ এখন অন্য কিছুকে ভয় পায় না অথচ জনগনের সেবক পুলিশ দেখলেই তাদের মধ্যে আতঙ্ক কাজ করে। প্রশাসনের কর্মকান্ড এখন দলীয় হয়ে গেছে। বিচার ব্যবস্থাকে কলঙ্কৃত করেছে, স্বাধীন দেশের মানুষ এখন পরাধীনতার ভেড়াজালে বন্দি হয়ে গেছে। এই সরকার এখন নির্বাচন দিতে ভয় পাচ্ছে।সোজা আঙ্গুলে ঘি উঠে না দেশের জনগনকে নিয়ে এই অবৈধ সরকারের পতন ঘটাতে হবে।

এ সময় তিনি আরও বলেন, মা-বোনদের ভোটে বিএনপি সব সময় সরকার গঠন করে। এই অনুষ্ঠানে মহিলাদের উপস্থিতি প্রমান করে আওয়ামীলীগ সরকারে বিদায় ঘন্টা বেজে গেছে। রহিঙ্গাদের উপর নির্যাতন দেখেও সরকার কোন প্রতিবাদ করার সাহস পাচ্ছ না। কারন তারা কূটনৈতিক ভাবে সম্পর্ন ভাবে ব্যার্থ। বর্তমানে দেশের প্রতিরক্ষা বাহিনী অচল হয়ে পরেছে। বিএনপি কোন সন্ত্রাসি দল নয়। বিএনপি সব সময় জনগনের উপর বিশ্বাস রাখে। আপনার দয়া করে আর ঘরে বসে থাকবেন না। আপনারা প্রতিটি ঘরে ঘরে প্রবেশ করে দেশের বর্তমান অবস্থায় সম্মেন্ধে তাদের বুঝাবেন। বেগম খালেদা জিয়া আমার হাতে ধানের র্শীষ তুলে দিয়েছেন। আমি এই প্রতিক আপনাদের হাতে তুলে দিতে চাই।

মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল বলেন, বন্দর আসলেই আমি শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান ও দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃতাধীন সোনালী দিন গুলোতে চলে যাই। এই বন্দর বিএনপির ঘাটি কারণ এই খান থেকেই নারায়ণগঞ্জ বিএনপিকে নেতৃত্ব দিয়ে আসছে। আগামী দিনেও গনতন্ত্রকে পুনরুদ্ধার করার জন্য আপনাদের নিয়ে রাজপথে আন্দোলন সংগ্রামে অংশগ্রহন করবো।

বিএনপি নেতা আল মামুন এর সঞ্চালনায় এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি ফখরুল ইসলাম মজনু, আয়েশা সাত্তার, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সবুর খান সেন্টু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মনিরুল ইসলাম সজল, দপ্তর সম্পাদক হান্নান সরকার, বন্দর থানা বিএনপি নেতা এড. আনিছুর রহমান মোল্লা, আজাহারুল ইসলাম বুলবুল, বন্দর উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান এডঃ মাহামুদা আক্তার, ১৯ নং ওয়ার্ড বিএনপি নেতা নাজিম উদ্দিন খান, আল- মামুন, আমজাদ মোল্লা, সেলিম, আক্তার, মহিবুর, কলাগাছিয়া ইউনিয়ন বিএনপি এডঃ মতিন. আবুল কাশেম, হাফেজ আহাম্মদ, মোঃ ফরিদ, মহানগর স্বেচ্ছা সেবক দল নেতা মাকিদ মোস্তাকিম শিপলু, মোঃ রোমান, দুলাল হোসেন, আব্দুর রশিদ হাওলাদার, মাসুদ, বন্দর থানা সেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম আহবায়ক সাইদুর রহমান, যুবদল নেতা নাজমুল হক রানা, আব্দুল সাত্তার, মোশারফ, আলম, আব্দুর রব,সমাজ সেবক কফিল উদ্দিন, আরিফ, সালাউদ্দিন, সজিব, জুবায়ের চৌধূরী, শ্যামল দাসসহ ১৯ নং ওয়ার্ড বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here