নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ¦ আনোয়ার হোসেন ও সাধারন সম্পাদক এড. খোকন সাহা যে সত্যিই মহানগর আওয়ামীলীগে ‘মেয়াদোত্তীর্ণ’ হয়ে পড়েছেন, রাজধানীর সমাবেশে যোগদানের সময় তার জ¦লন্ত উপলব্ধি করতে পেরেছেন বলে জানান, একাধিক শীর্ষস্থানীয় নেতা।
শনিবার (১৮ নভেম্বর) দুপুরে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ‘বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ’ ইউনেস্কো কর্তৃক স্বীকৃতি পাওয়ায় নাগরিক কমিটির ব্যানারে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ আয়োজিত নাগরিক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

এমিরেটস্ অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জমানের সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দেখাগেছে, উক্ত সমাবেশে যোগদানের লক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের অধীনস্থ ২৭ ওয়ার্ডের সর্বোচ্চ দেড় থেকে ২শ’ নেতাকর্মী ট্রাকে চড়ে ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের কার্জন হল সংলগ্ন দোয়েল চত্ত্বরে এসে সমবেত হন। আর নিজস্ব এসি গাড়ীতে চড়ে আসেন সভাপতি আনোয়ার হোসেন ও সাধারন সম্পাদক এড. খোকন সাহা। এসময় তাদের সাথে ছিলেন, মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক জি এম আরমান, সাংগঠনিক সম্পাদক এড. মাহমুদা মালা, কার্যকরী সদস্য সাখাওয়াত খান সুমন।
কিন্তু ততক্ষনে সমাবেশের প্রায় অর্ধেক পর্ব শেষ হয়ে যায়। এরপর অনেক কষ্ট করে সমাবেশ স্থলে প্রবেশের চেষ্টা করেন মহানগর আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দরা। কেউ কেউ ভেতরে প্রবেশের সুযোগ পেলেও বেশীর ভাগ নেতাকর্মীই বাহিরে অবস্থান করেন।

আর প্রায় সময়ই আনোয়ার হোসেন ও খোকন সাহা মুখে মুখে নিজেদের বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতিবিদ হিসেবে দাবী করলেও খোদ বঙ্গবন্ধুর কৃতিত্বের ফলে আয়োজিত এত বড় সমাবেশে মাত্র কয়েকশ’ নেতাকর্মী নিয়ে আসায় নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগ জনসমাগম ঘটাতে ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে বলে আক্ষেপ করেন আনোয়ার খোকনের সাথেই সমাবেশস্থলে আসা একাধিক শীর্ষ নেতা।

জানাগেছে, নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে আনোয়ার হোসেন এবং এড. খোকন সাহার বয়সকাল বহুবছর হলেও তারা অদ্যবধি তাদের তেমন পরিমানে নেতাকর্মী গড়ে তুলতে পারেন নি। যার ফলে নারায়ণগঞ্জেও মহানগর আওয়ামীলীগের কোন অনুষ্ঠান হলে সেখানে নেতাকর্মীদের উপস্থিতি খুবই কম পরিলক্ষিত হতো। একসময় আনোয়ার হোসেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন মেয়র ডা: সেলিনা হায়াত আইভীর সাথে এবং পরবর্তীতে সাংসদ শামীম ওসমানের কাছে চলে এসে মিছিল মিটিংয়ে ব্যাপক জনসমাগম পেলেও বর্তমানে শামীম আইভী উভয়ের সাথেই মনমালিন্য সৃষ্টি হওয়ায় আনোয়ার হোসেন ও শামীম ওসমানের বন্ধু এড. খোকন সাহা বর্তমানে প্রায় নেতাকর্মী শূণ্য হয়ে পড়েছেন বলে মন্তব্য করেন তৃণমূল নেতৃবৃন্দ। যা ১৮নভেম্বর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের সমাবেশে যোগদানের ক্ষেত্রেই পরিলক্ষিত হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here