নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নারায়ণগঞ্জে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে দেশের শীর্ষস্থানীয় জনপ্রিয় অনলাইন পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কম এর আয়োজনে ও শীর্ষস্থানীয় শিল্পগোষ্ঠী প্রান গ্রুপের সহযোগিতায় ‘জাতিসংঘের ৭ম দাপ্তরিক ভাষা হোক বাংলা’ অনলাইন ভোটিং কার্যক্রমের উদ্বোধন হয়েছে। উদ্বোধনের পর পর বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা জাতিসংঘে দাপ্তরিক ভাষার দাবিতে ভোট প্রদান শুরু করে।
বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে নারায়ণগঞ্জের চাষাঢ়া কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে জাতিসংঘে বাংলা চাই কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়। পরে শহরে একটি র‌্যালী বের করে জাতিসংঘে বাংলা চাই শ্লোগান দিয়ে সবাইকে জাগ্রত করা হয়।

এদিকে শীর্ষস্থানীয় শিল্পগোষ্ঠী প্রানগ্রুপের সহযোগিতায় দেশের জনপ্রিয় অনলাইন জাগোনিউজ২৪.কমের আয়োজনকে প্রশাসন, রাজনৈতিকসহ বিভিন্ন পেশাজীবির লোকজন সাধুবাদ জানিয়েছেন এবং অনলাইন ভোটিং কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানের পর সকলেই ভোটিং মাধ্যমে আবেদন শুরু করেন। নারায়ণগঞ্জের সরকারী মহিলা কলেজ, তোলারাম বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের শিক্ষার্থীসহ স্কুলের শিক্ষার্থীরা উৎসাহের মধ্য দিয়ে ভোট প্রদান করে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ জেলা রিপোর্টাস ইউনিটির সভাপতি শহিদুল্লাহ রাসেলের সঞ্চানলায় জাগো নিউজ২৪.কমের নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি ও দৈনিক যায়যায়দিনের জেলা প্রতিনিধি মো: শাহাদাত হোসেনের সভাপতিত্বে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা বাংলার দাবিতে অনলাইন ভোটিং কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাধারন সম্পাদক শরীফ উদ্দিন সবুজ। অনুষ্ঠানের অন্যতম অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামাল উদ্দিন। আর অনুষ্ঠানের প্রধান আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন পরিবেশবাদী মানবধীকার সংগঠন নির্বিকের প্রধান সমন্বয়ক এটিএম কামাল। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন দৈনিক সমকালের জেলা প্রতিনিধি এমএ খান মিঠু, দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশ এর জেলা প্রতিনিধি শরীফ সুমন, দৈনিক যুগান্তরের ফতুল্লা প্রতিনিধি আলামিন প্রধান, নারায়ণগঞ্জ সদর থানার ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সাধারন সম্পাদক সওদাগর খান, ফতুল্লা প্রেস ক্লাবের সাধারন সম্পাদক আব্দুর রহিম, সাংবাদিক জাহাঙ্গীর ডালিম, তাতীলীগ নেতা দুলাল আহম্মেদ শিশির, ছাত্রলীগ নেতা আল আমিন, টিটু, ব্যবসায়ী জনি, রাশেদুল ইসলাম সুমন, সাংবাদিক জনি, রিপন, সোহেল মাহমুদ, এবাদউল্লাহসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

শরীফ উদ্দিন সবুজ বলেন, এই বাংলা ভাষার জন্য আমাদের নারায়ণগঞ্জের কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা মিছিল নিয়ে চাষাঢ়া সোনালী ব্যাংকের সামনে আসলে পুলিশ হামলা চালায়, লাঠিপেটা করে। ওখান থেকে আটক করে এবং নির্যাতন চালায়। আর আজকের এ ভাষার জন্য শহিদ মিনারে দাড়িয়েজাতিসংঘের ৭ম দাপ্তরিক ভাষা হোক বাংলা এর দাবি জানাচ্ছি। বাংলা ভাষা আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা হিসাবে স্বীকৃতি পেয়েছে। কিন্তু জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা হবে বাংলা এটাই আমাদের জাতির দাবি। সারা দেশে জাগোনিউজ২৪.কম যে পদক্ষেপ গ্রহন করেছে এবং দাবি জানাচ্ছে। তাদের সাথে আমি একমত পোষন করছি। এ ভাষার জন্য আমাদের অনেকের প্রান দিতে হয়েছে। তাই আমাদের সবারই একটাই দাবি জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা হউক বাংলা। সবাই মিলে অনলাইনের মাধ্যমে ভোট প্রদান করি। জাগোনিউজ২৪.কম এর নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি যে আয়োজন করেছে তা যেন পর্যায়ক্রমে সফলতা বয়ে আনার জন্য দেশের সব জেলার চেয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলায় যেন বেশি ভোট প্রদান করা হয়।

এটিএম কামাল বলেন, বাংলা ভাষার জন্য আমাদের দেশের অনেকের তাজা রক্ত দিতে হয়েছে। সেই রক্ত কখনো বৃথা যেতে পারে না। বাংলা ভাষা আন্তর্জাতিক ভাবে মর্যাদা পেয়েছে কিন্তু জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা বাংলা হিসাবে স্বীকৃতি দেয়া হয়নি। তাই জাতিসংঘে বাংলা চাই এ শ্লোগানকে সামনে রেখে দেশের জনপ্রিয় অনলাইন পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কম যে আয়োজন করেছে তা সাধুবাদ জানাই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here