নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামের ডাকা সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ‘সুপার ফ্লপ’ হয়েছে নারায়ণগঞ্জে বলে মন্তব্য করেছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।
বৃহস্পতিবার (১২ অক্টোবর) সকাল ৬ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত জেলার কোথাও জামায়াত শিবির কর্মীদের পিকেটিংয়ের খবর পাওয়া যায়নি। এমনকি বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী জামায়াতের হরতালে নৈতিক সমর্থন জানালেও জামায়াত শিবির নেতাকর্মীদের সমর্থন জানিয়ে মাঠে নামেনি নারায়ণগঞ্জ বিএনপি।

সরেজমিন দেখাগেছে, অন্যান্য দিনের মত বৃহস্পতিবারও জেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, অফিস আদালত খোলা ছিল। সর্বত্রই স্বাভাবিক ভাবে কার্যক্রম পরিচালিত হয়েছে। নগরী জুড়ে ছিল যানবাহনের চাপ।

হরতালকে ঘিরে কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে নগরীর গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট গুলোতে মোতায়েন ছিল অতিরিক্ত পরিমানে র‌্যাব-পুলিশ। যার ফলে গ্রেফতার ভয়ে কোথাও কয়েক মিনিটের জন্য ঝটিকা মিছিলও করার সুযোগ পায়নি জামায়াত শিবির কর্মীরা।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে নারায়ণগঞ্জ জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মোহাম্মদ মতিয়ার রহমান নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডিকে জানান, ‘পুলিশী তৎপরতার কারনে হরতালে জামায়াত শিবির কোথাও পিকেটিং করতে পারেনি।’

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমির মকবুল আহমাদ, নায়েবে আমীর ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মিয়া গোলাম পরওয়ার, সেক্রেটারী জেনারেল ডা: শফিকুর রহমানসহ নেতাদের গ্রেফতারের প্রতিবাদে ১২ অক্টোবর হরতাল ঘোষণা করে দলটি।

গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়। এতে বলা হয়-নেতাদের গ্রেফতার করে তাদের বিরুদ্ধে ‘সাজানো মিথ্যা’ মামলা দিয়ে তাদের প্রত্যেককে ১০ দিনের রিমান্ডে নেয়া হয়েছে। এর প্রতিবাদে ও মুক্তির দাবিতে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর পক্ষ থেকে বুধবার সারা দেশে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ, বৃহস্পতিবার সারাদেশে সকালÑসন্ধ্যা শান্তিপূর্ণ হরতাল এবং ১৩ অক্টোবর শুক্রবার গ্রেফতারকৃত নেতৃবৃন্দের মুক্তির জন্য সারা দেশব্যাপী দোয়া অনুষ্ঠিত হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here