নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩৯তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে অসহায় দুস্থ্যদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি এড. সাখাওয়াত হোসেন খান। শনিবার (২৩ মে) সকালে বন্দর থানাধীণ কদমরসুল দরগাহ প্রাঙ্গণে হতদরিদ্র লোকজনের মাঝে চাল ডালসহ নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য দ্রব্য বিতরণ করেন তিনি।

খাদ্য সামগ্রী বিতরণকালে এড. সাখাওয়াত হোসেন খান বলেন, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান একাত্তরের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে নিজের জীবন বাজি রেখে যুদ্ধ করেছেন, স্বাধীনতার ঘোষনা দিয়ে দেশের মানুষকে মুক্তিযুদ্ধে উদ্ধুদ্ধ করেছেন। স্বাধীনতা যুদ্ধে অসামান্য অবদানের জন্য বাঙালি জাতি বাংলার রাখাল রাজা খ্যাত শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানকে চিরকাল মনে রাখবে। শহীদ জিয়াই সর্বপ্রথম বহুদলীয় গনতন্ত্রের প্রতিষ্ঠা করে জাতিকে বাকশালের অভিশাপ থেকে মুক্ত করেছিলেন। আজ সেই গণতন্ত্র আবারো মুখ থুবরে পড়েছে। বাংলাদেশের গণতন্ত্র আজ বন্দী হয়ে আছে নব্য বাকশালীদের অবৈধ কারাগারে ।

তিনি বলেন, বর্তমান অবৈধ সরকার প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় ব্যর্থতার পরিচয় দিয়ে যাচ্ছে, সেইসাথে অসহায় দুস্থ্যদের জন্য বরাদ্দকৃত ত্রাণসামগ্রীও লুটপাট করে নিয়ে যাচ্ছে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা। তাই দেশের মানুষের মাঝে এখন একদিকে করোনার আতঙ্ক অন্যদিকে ক্ষুধার জ্বালা, দ্বিমুখি এই যন্ত্রনায় মানুষ দিশেহারা হয়ে পরেছে। এমতাবস্থায় বিএনপির চেয়ারপার্সণ ও তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া এবং আগামীর রাষ্ট্রনায়ক তারেক রহমানের পক্ষ থেকে আমরা সাধারণ মানুষের কাছে খাদ্য সামগ্রী পৌছে দিচ্ছি। যতদিন এই দূর্যোগ থাকবে ততদিন আমরা আপনাদের সেবায় নিয়োজিত থাকবো।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক সলিমুল্লাহ বাবুলের সার্বিক তত্ত্বাবধানে অনুষ্ঠিত খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা যুবদলের সহ-সভাপতি পারভেজ মল্লিক, মহানগর তাঁতীদলের সদস্য সচিব ইকবাল হোসেন, নাসিক ২৩ নং ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী খোকন, মহানগর যুবদলের কার্যকরী সদস্য সম্রাট হাসান সুজন, মহানগর তাতীদলের যুগ্ম আহবায়ক অপু রহমান, সদস্য কবির হোসেন, সদস্য মোঃ হালিম, মোঃ বশির উদ্দিন, মোঃ স্বপন, বন্দর থানা কমিটির আহ্বায়ক জামান খান, যুগ্ম আহ্বায়ক হানিফ খান, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য মোঃ ইমরানসহ নেতাকর্মীবৃন্দ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here