নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রথম ও দ্বিতীয়টির বাস্তবায়নের পর এবার তৃতীয় সিদ্ধান্ত অর্থাৎ পূর্ণাঙ্গ কমিটির শূণ্য ৬টি পদ পূরণের লক্ষ্যে কাজ শুরু করে দিয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের দায়িত্বশীলরা।
অযোগ্য, অপরিচিত, বিতর্কিত এবং একাধিক কমিটিতে বহাল নেতারা পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে স্থান পাওয়ায় শুরুতেই বিতর্কের মুখে পড়ে জেলা আওয়ামীলীগ। এমনকি অর্থের বিনিময়ে সাধারন সম্পাদক এড. আবু হাসনাত মো: শহীদ বাদলের বিরুদ্ধে জেলা কমিটিতে বেশীরভাগ অযোগ্যদের পদায়নের অভিযোগ উঠে।

আর তাই যোগ্য ও ত্যাগীদের পদায়নের মাধ্যমে শূণ্য পদগুলো পূরণের মাধ্যমে সেই বিতর্ক থেকে মুক্ত হওয়ার প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাই ও সাধারন সম্পাদক এড. আবু হাসনাত মো: শহীদ বাদল বলে বিশ^স্ত সূত্রে জানাযায়।

কারন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মোতাবেক কেবল জেলা কমিটির সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের সুপারিশকৃত যোগ্য নেতারাই কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত হতে পারবেন। তাই পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে বাকী থাকা শূণ্য ৬টি পদে অধিষ্ঠিত হতে এখন দলের এই শীর্ষ দুই নেতাসহ সিনিয়র সহ-সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন মেয়র ডা: সেলিনা হায়াত আইভীর দ্বারস্থ হচ্ছেন অনেক নেতা।

দলীয় সূত্রে জানাগেছে, দীর্ঘ ১৪ বছর পর ২০১৬ সালের ৯ অক্টোবর বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাইকে সভাপতি, ডা. সেলিনা হায়াত আইভীকে সহ-সভাপতি এবং এড. আবু হাসনাত মো. শহীদ বাদলকে সাধারণ সম্পাদক করে জেলা আওয়ামী লীগের তিন সদস্য বিশিষ্ট আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়। এর ১৩ মাস পর গত বছরের ২৫ নভেম্বর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৭৫ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটির অনুমোদন দেন।

যার মধ্যে যার মধ্যে ৫টি পদ শূণ্য ছিল। এগুলো হলো, সহ সভাপতি, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক , বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক এবং ২ টি কার্যকরী সদস্য পদ। আর কমিটি ঘোষণার পূর্বেই একজন সহ-সভাপতি খাজা রহমত উল্লাহ মারা যাওয়ায় আরো একটি পদ শূণ্য হয়ে যায়।

তাছাড়া কমিটি ঘোষণার পর জেলা আওয়ামীলীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক পদ থেকে জাতীয় শ্রমিক লীগ কেন্দ্রীয় শ্রমকল্যান বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ¦ কাউছার আহম্মেদ পলাশ পদত্যাগ করেন। ফলে এই পদটিতেও নতুন কাউকে অধিষ্ঠিত করার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানাযায়।

তাই গত ১৫ জানুয়ারী শহরের ২ নং রেলগেটস্থ দলীয় কার্যালয়ে সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাইয়ের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত পূর্ণাঙ্গ জেলা আওয়ামীলীগের প্রথম ওয়ার্কিং কমিটির সভায় শূণ্যপদ গুলো পদ দ্রুত পূরণের বিষয়ে উঠে আসে আলোচনায়।

পরবর্তীতে সভায় সর্বসম্মতিক্রমে তিনটি সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়। যার মধ্যে, প্রথমটি হচ্ছে জেলা আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে টুঙ্গিপাড়া জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মাজারে শ্রদ্ধাঞ্জলী অর্পণ। দ্বিতীয়টি, সাত থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের সাথে আলোচনা করে নতুন সদস্য সংগ্রহের কার্যক্রম বেগবান করা। আর তৃতীয়টি ছিল, জেলা কমিটির শূণ্য ৬টি পদ দ্রুত পূরণ করার।

তন্মধ্যে, প্রথম ও দ্বিতীয় সিদ্ধান্ত ইতিমধ্যেই বাস্তবায়ন হলেও এবার বাকী থাকা তৃতীয় সিদ্ধান্ত মোতাবেক শূণ্য পদ গুলো পূরণের লক্ষ্যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন শীর্ষস্থানীয় নেতৃবৃন্দরা।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাই নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডিকে জানান, ‘জেলা কমিটির শূণ্য পদ গুলো পূরণে শীঘ্রই পদক্ষেপ নেয়া হবে। এই পদ গুলোতে অবশ্যই যোগ্য ও ত্যাগীদের মূল্যায়িত করা হবে। দ্বিতীয় ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে শূণ্য পদ প্রত্যাশীদের নাম উপস্থাপন করে তা চূড়ান্ত করা হবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here