আগামীকাল বৃহস্পতিবার কলম্বোতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুই ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টুয়েন্টি টুয়েন্টি দিয়েই আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের ছোট ফরম্যাটকে বিদায় জানাচ্ছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। সিরিজের প্রথম টি-২০ শুরুর আগেই ছোট ফরম্যাটকে বিদায় জানানোর সিদ্ধান্ত নেন ম্যাশ। তাই জয় দিয়ে মাশরাফির বিদায়ী ম্যাচকে স্মরণীয় করে রাখার লক্ষ্য নিয়ে লঙ্কানদের মুখোমুখি হবেন সাকিব-মুশফিকুর-তামিমরা। বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় শুরু হবে ম্যাচটি।

অবসর নেয়ার কোন গুঞ্জন বা অগ্রিম কোন সিদ্ধান্ত ছিলো না মাশরাফির। সিরিজের প্রথম ম্যাচে টস-এর আগে আচমকা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিজের অবসর নিয়ে আবেগী স্ট্যাটাস দেন মাশরাফি। তখনো তার অমন স্ট্যাটাস চাউর হয়নি ফেসবুকে। কিন্তু শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টস জিতে নিজের সিদ্ধান্ত জানাতে গিয়ে অবসরের কথাও বলে বসেন ম্যাশ। তাতেই জেনে যায় পুরো ক্রিকেট বিশ্ব। তাই শ্রীলংকার বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টি২০ ম্যাচটিই হবে ছোট ফরম্যাটে মাশরাফির ক্যারিয়ারের শেষ খেলা।
স্বাভাবিকভাবেই মাশরাফির বিদায়টা জয় দিয়েই শেষ করতে চাইবে বাংলাদেশ। সেই সাথে সিরিজ বাঁচানোর মিশন নিয়েই নামবে টাইগাররা। প্রথম ম্যাচ ৬ উইকেটে হেরে যাওয়ায় শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুই ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে পিছিয়ে বাংলাদেশ। শেষ ম্যাচটি জিততে পারলে, ড্র করেও সিরিজটি স্মরণীয় করে রাখতে পারবে। পাশাপাশি বীরের বেশেই মাঠ ছাড়তে পারবেন বাংলাদেশের সেরা দলপতি মাশরাফি।
তরুণদের সুযোগ করে দিতেই অবসরের প্রধান কারণ বলে প্রথম টি-২০ শেষে উল্লেখ করেছেন বাংলাদেশের দলপতি ম্যাশ, ‘তরুণদের সুযোগ করে দিতে চাই। ভালো পারফরমেন্স করেও দলে থাকতে পারে না রুবেল। তার রেকর্ড ভালো। শেষ দুই টি-২০ ম্যাচে সাত উইকেট নিয়েছে সে। এমনকি আমার চেয়েও রেকর্ড ভালো। আমি মনে করি তরুণদের সুযোগ করে দেয়ার এখনই সময়।’
তরুণদের সুযোগ করে দিতেই টি-২০ ছাড়ার সিদ্বান্ত মাশরাফির। তাই ম্যাশের বিদায়ী ম্যাচে নিজেদের উজার করে দিতে চান তরুন মোসাদ্দেক হোসেন, ‘দ্বিতীয় ম্যাচে জয় ছাড়া কোন বিকল্প নেই। আমার মনে হয়, দলের সবাই মাশরাফি ভাইয়ের জন্য কাল খেলতে নামবে। আমি ব্যক্তিগত ভাবে বলতে পারি, শুধুমাত্র মাশরাফি ভাইয়ের জন্যই দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি খেলবো। আমরা সবাই চাইবো দ্বিতীয় ম্যাচ জিতে মাশরাফি ভাইকে বিদায়ী উপহার দিতে।’
বীরের মত বাংলাদেশকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন মাশরাফি। তাতে বিদায়ী ম্যাচ জয় নিয়ে শেষ করতে পারলে সতীর্থদের কাছ থেকে বড় অর্জনই হয়ে থাকবে মাশরাফির ক্যারিয়ারে।
বাংলাদেশ দল (সম্ভাব্য): মাশরাফি বিন মর্তুজা (অধিনায়ক), সাকিব আল-হাসান (সহ-অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, মুশফিকুর রহিম, ইমরুল কায়েস, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, সাব্বির রহমান, মেহেদি হাসান মিরাজ, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মুস্তাফিজুর রহমান, তাসকিন আহমেদ, সানজামুল ইসলাম, মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, নুরুল হাসান সোহান ও শুভাশিষ রায়।
শ্রীলঙ্কা দল (সম্ভাব্য) : উপুল থারাঙ্গা (অধিনায়ক), দিলশান মুনাবিরা, কুসল জেনিথ পেরেরা, লাসিথ মালিঙ্গা, ইসুরা উদানা, নুয়ান কুলাসেকারা, দাসুন শানাকা, ভিকুম সঞ্জয়, মিলিন্দা সিরিবর্দেনে,আসেলা গুনারতেœ, সেক্কুজে প্রসন্ন. চাকমারা কাপুগেদারা, থিসারা পেরেরা, লক্ষন সান্দাকান, শেহান জয়সুরিয়া ও দানুস্কা গুনাথিলাকা। বাসস।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here