নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: বাংলাদেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেটে রেজিষ্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচনের দ্বিতীয় পর্যায়ের ভোট গ্রহণ শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নারায়ণগঞ্জে অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শনিবার (১৩ জানুয়ারী) নারায়ণগঞ্জ সরকারী তোলারাম কলেজের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একাডেমিক ভবনে সকাল ১০ টা থেকে দুপুর ১ টা পর্যন্ত চলে একটানা ভোট গ্রহণ।

এই জেলায় ঢাবির রেজিস্টার্ড গ্রেজুয়েটস ভোটার ছিলেন ৬৭১ জন। তন্মধ্যে মাত্র ৩৫ ভাগ ভোট পড়েছে।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে নির্বাচনের প্রিজাইডিং অফিসার ও ঢাবির ডেপুটি রেজিষ্ট্রার আব্দুল কুদ্দুস ভূইয়া নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডিকে জানান, ‘নারায়ণগঞ্জ জেলার ৬৭১ জন ভোটারের মধ্যে ২৩৭ জন ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন। আগামী ২০ জানুয়ারী তৃতীয় ধাপের ভোট গ্রহণ শেষে ফলাফল ঘোষণা করা হবে।’

ভোট চলাকালীন সময় কেন্দ্রে উপস্থিত ছিলেন, গণতান্ত্রিক ঐক্য পরিষদের প্রার্থী বিশিষ্ট নাট্য ব্যাক্তিত্ব রামেন্দ্র মজুমদার, নারায়ণগঞ্জ জেলা সমন্বয়ক এড. আনিসুর রহমান দিপু, নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ¦ আনোয়ার হোসেন, বিএনপি সমর্থিত প্যানেলের প্রার্থী এড. তৈমূর আলম খন্দকার, মহানগর বিএনপির সভাপতি এড. আবুল কালাম, সহ-সভাপতি এড. হুমায়ুন কবির, এড. সাখাওয়াত হোসেন খান, এড. বোরহান উদ্দিন, সোনারগাঁ থানা যুবলীগের সাবেক আহ্বায়ক এড. কামরুল ইসলাম, সরকারী তোলারাম কলেজের শিক্ষক পরিষদের সচিব জীবন কৃষ্ণ মোদক প্রমুখ।

সকালে ভোট কেন্দ্রে এসেই প্রথমে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন নারায়ণগঞ্জে এই রাজনীতিবিদরা।

আর দলীয় প্যানেলের প্রার্থীদের ভোট প্রদানের লক্ষ্যে কেন্দ্রের বাইরে দাঁড়িয়ে ভোটারদের আকুতি জানান আওয়ামীলীগ ও বিএনপির নেতাকর্মীরা।


গণতান্ত্রিক ঐক্য পরিষদের জেলা সমন্বয়ক ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের জাতীয় কমিটির সদস্য এড. আনিসুর রহমান দিপুর উদ্যোগে ভোট কেন্দ্রের বাইরে ভোটার স্লিপ বিতরনের মঞ্চ তৈরী করা হয়।

এছাড়াও বাঙালি জাতীয়তাবাদ, মুক্তিযোদ্ধের চেতনা, বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার প্রত্যয়ে গণতান্ত্রিক ঐক্য পরিষদের প্রার্থীদের নির্বাচিত করতে ভোটারদের উদ্বুদ্ধ করেন এড. আনিসুর রহমান দিপু।

এবছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেটে ২৫ জন রেজিষ্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচনে-২০১৮ তে অংশ গ্রহণ করছে আওয়ামীলীগ সমর্থিত গণতান্ত্রিক ঐক্য পরিষদ ও বিএনপি সমর্থিত জাতীয়তাবাদী ঐক্য পরিষদ থেকে ৫০ জন প্রার্থী।

গণতান্ত্রিক ঐক্য পরিষদের প্রার্থীরা হলেন, ড. অসীম সরকার, এ আর এম মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, এ এইচ এম এনামুল হক চৌধুরী, প্রফেসর ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, এবিএম বদরুদ্দোজা, প্রফেসর ডা. এম ইকবাল আর্সলান, মুক্তিযোদ্ধা এম. ফরিদ উদ্দিন, প্রফেসর ড. এমরান কবীর চৌধুরী, এসএম বাহালুল মজনুন চুন্নু, প্রফেসর ড. জিনাত হুদা, প্রফেসর ড. তাজিন আজিজ চৌধুরী, নিজাম চৌধুরী, মাহফুজা খানম, প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আবদুস সামাদ (কবি মুহাম্মদ সামাদ), প্রফেসর মোহাম্মদ আব্দুল বারী, ব্যাংকার মো. আতাউর রহমান প্রধান, প্রফেসর ডা. মো. আব্দুল আজিজ, মো. আলাউদ্দিন, মো. নাসির উদ্দিন, ড. মো. লিয়াকত হোসেন মোড়ল, রঞ্জিত কুমার সাহা, রামেন্দু (কৃষ্ণ) মজুমদার, প্রফেসর শরীফ আহমদ সাদী, প্রফেসর ড. সাদেকা হালিম এবং প্রফেসর ড. সৈয়দ হুমায়ুন আখতার।

জাতীয়তাবাদী পরিষদের প্রার্থীরা হলেন, ড. আ ফ ম ইউসুফ হায়দার, ড. উম্মে কুলসুম রওজাতুল রোম্মান, এ কে এম ফজলুল হক মিলন, এ টি এম আবদুল বারী ড্যানী, এ বি এম ফজলুর করিম, এ বি এম মোশাররফ হোসেন, ডা. এস এম রফিকুল ইসলাম বাচ্চু, কে এম আমিরুজ্জামান শিমুল, ড. চৌধুরী মাহমুদ হাসান, ড. জিন্নাতুন নেছা তাহমিদা বেগম, অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার, ডা. প্রভাত চন্দ্র বিশ্বাস, ডা. ফরহাদ হালিম ডোনার, ড. মোহাম্মদ আবদুর রব, ড. মোহাম্মদ আলমোজাদ্দেদী আলফেছানী, ডা. মোহাম্মদ রফিকুল কবির লাবু, মো. আশরাফুল হক, অ্যাডভোকেট মো. মাসুদ আহমেদ তালুকদার, ডা. মো. মোয়াজ্জেম হোসেন, ড. মো. শরীফুল ইসলাম দুলু, মো. সাইফুল ইসলাম ফিরোজ, অধ্যক্ষ মো. সেলিম ভূঁইয়া, মো. সেলিমুজ্জামান মোল্লা সেলিম, শওকত মাহমুদ, ড. সদরুল আমিন।

উল্লেখ্য, এরআগে গত ৬ জানুয়ারী ২০১৭ শনিবার বাইরে ঢাকার বাইরে প্রথম পর্যায়ে ২৯ টি কেন্দ্রে এবং ১৩ জানুয়ারী ১৩ টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। আগামী ২০ জানুয়ারী ঢাকা বিশ^বিদ্যালয় এলাকায় ৩টি ভোট কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here