নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের ঢাকা বিভাগীয় যুগ্ম সম্পাদক ডা: দিপু মনি এমপি গত ৩০ জুলাই উদ্বোধন করে গিয়েছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের নতুন সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রম।
কিন্তু তারপর পূর্ণাঙ্গ কমিটির অভাবে ভাটা পড়ে জেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে শুরু হওয়া দলীয় সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রমে। এমনকি ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগ সরকারের বিগত ৮ বছরের নানা উন্নয়ণ কর্মকান্ড তৃণমূল পর্যায়ে জনগণের দ্বারে তুলে ধরার কার্যক্রমও স্থবির হয়ে যায়।

মূলত গত ২০১৬ সালের ৯ অক্টোবর বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাইকে জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন মেয়র সেলিনা হায়াত আইভীকে সিনিয়র সহ-সভাপতি এবং এড. আবু হাসনাত মো: শহীদ বাদলকে সাধারণ সম্পাদক করে তিন সদস্য বিশিষ্ট জেলা আওয়ামীলীগের আংশিক কমিটি ঘোষণার পর সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনায় আব্দুল হাই ও এড. আবু হাসনাত মো: শহীদ বাদল সক্রিয় থাকলেও মেয়র ডা: সেলিনা হায়াত আইভী ছিলেন অনেকটাই নিষ্ক্রিয়।

যার ফলে দলীয় সদস্য সংগ্রহের মাধ্যমে তৃণমূলকে সুসংগঠিত করার পাশাপাশি বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ণ মূলক কর্মকান্ড জনসাধারনের কাছে তুলে ধরতে কেন্দ্র নির্দেশনা থাকলেও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক একাকী সেই কার্যক্রম ঠিক ভাবে পরিচালনা করতে পারেন নি।

কিন্তু এবার হবে। কেননা, অবশেষে আংশিক কমিটি ঘোষণার প্রায় বছর খানেক পর গত ২৫ নভেম্বর রাতে ৮১ সদস্য বিশিষ্ট নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটির অনুমোদন দেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এরপর থেকেই আগামী একাদশ নির্বাচনকে ঘিরে তৃণমূল পর্যায়ে দলকে সুসংগঠিত করতে ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করতে থাকেন জেলা আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে পদ পাওয়া দলটির যুগ্ম সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকেরা।

কারন, যেকোন সংগঠনকেই সুসংগঠিত করার ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশী ভূমিকা পালন করে থাকেন যুগ্ম সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকেরা। ফলে দায়িত্ব প্রাপ্তির পর নারায়ণগঞ্জ জেলায় এবার আওয়ামীলীগের তৃণমূলকেই সুসংগঠিত করাকে প্রথম লক্ষ্য হিসেবে নিয়েছেন জেলা আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে সদ্য গুরুত্বপূর্ণ পদবী প্রাপ্তরা।

জেলা আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে যুগ্ম সম্পাদক হিসেবে আলহাজ¦ জাহাঙ্গীর আলম, ডা. আবু জাফর চৌধুরী বিরু, ব্যারিষ্টার ইকবাল পারভেজ এবং সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে সুন্দর আলী, মীর সোহেল আলী, একেএম আবু সুফিয়ান পদ পাওয়ার পর বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তর্বক অর্পন শেষে প্রত্যেকেই সর্বপ্রথম তৃণমূলকে সুসংগঠিত করার লক্ষ্যে জোর দেন।

কারন হিসেবে জেলা আওয়ামীলীগের একাধিক শীর্ষ নেতা বলেন, ‘জেলা আওয়ামীলীগের মূল শক্তিই হচ্ছে তৃণমূল। তাই সর্বপ্রথম তৃণমূলকে শক্তিশালী করাই হবে আমাদের মূল লক্ষ্য। আর তৃণমূলকে ঐক্যবদ্ধ করা গেলেই আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করা সহজ হবে।’

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাই নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডিকে বলেন, ‘দীর্ঘদিন পর জেলা আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠিত হয়েছে। এখন সবার আগে তৃণমূলকে আরো সুসংগঠিত শক্তিশালী করতে কাজ করা হবে। পাশাপাশি দলীয় সদস্য সংগ্রহ কার্যক্রম পুরোদমে চালানোর জন্য দলীয় নেতৃবৃন্দদের নির্দেশনা দেয়া হবে। আর তৃণমূল পর্যায়ে সরকারের উন্নয়ণ কর্মকান্ড তুলে ধরতে উঠান বৈঠকও করা হবে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here