নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: দলের বাইরে গিয়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীদের দায়িত্ব কেউ নিবে না বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেণ নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক সাংসদ এড. আবুল কালাম। তিনি বলেন, জনগনের জন্য আমি আজ এই পযর্ন্ত এসেছি, তারা আমার মাথার মুকুট। তাই যত দিন বেচেঁ থাকবো দেশ ও দলের স্বার্থে রাজনীতি করে যাবো।
শনিবার (১৬ সেপ্টম্বর) বেলা ১১ টায় ১৩ নং ওয়ার্ড বিএনপির উদ্যোগে সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কর্মসূচী উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

১৩নং ওয়ার্ড বিএনপি নেতা এড. রিয়াজুল ইসলাম আজাদ এর সভাপতিত্বে এ কর্মসূচীতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল, প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি নুর ইসলাম সরদার।

এ সময় আরও বক্তব্য রাখেন, মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি এড. জাকির হোসেন, আয়সা সাত্তার, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সবুর খান সেন্টু, শওকত হাশেম শকু, কোষাধ্যক্ষ মনিরুজ্জামান মনির, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আওলাদ হোসেন, মনিরুল ইসলাম সজল, বিএনপি নেতা এড.আনিছুর রহমান মোল্লা, সদর থানা শ্রমিক দল সভাপতি মনির মল্লিক, মহানগর স্বেচ্ছা সেবক দল নেতা দুলাল হোসেন প্রমূখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, আমাদের সদস্য সংগ্রহ ও নবায়নের কাজটি দ্রুত গতিতে চললেও সেটা হচ্ছে প্রাতিষ্ঠানিক। আমরা কেন্দ্রীয় বিএনপির দেয়া সকল নিয়ম মেনে সংগঠনকে দাঁড় করানোর জন্য কাজ করে যাচ্ছি কোন ব্যক্তিকে খুশি করার জন্য নয়। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া একটি সময় উপযোগী সিদ্ধান্ত নিয়েছেন সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কর্মসূচীর ঘোষনা করে। আর এই কর্মসূচীকে নিয়ে কোন সুবিধাবাদীকে সুযোগ নিতে দেয়া যাবে না। যারা দলের নিয়মের বাহিরে গিয়ে বিশৃংখলা সৃষ্টি করছেন আমরা তাদের দায়িত্ব নিবো না।

এ সময় তিনি সংবাদ কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমরা গনতন্ত্র পুন:রুদ্ধার করার জন্য ঐক্যবদ্ধ হচ্ছি। দেশের এই ক্রান্তি লগ্নে যারা জনগনের কথা চিন্তা না করে মনোনয়ন নিয়ে ভাবছেন তারা হয়তো বা ভুলে গেছেন এখনো নির্বাচনী পরিবেশ সৃষ্টি হয়নি। আর এই মনোনয়ন দেয়ার দায়িত্ব দেশনেত্রীর। আমি মিডিয়ার ভাইদের অনুরোধ করবো আজ থেকে আমাকে মনোনয়ন প্রত্যাশীর কাতারে রাখবেন না। যখন সময় হবে আমি আপনাদেরকে বলবো তার আগে নয়। দেশের এই দুঃসময়ে বিএনপির পাশে মিডিয়া সব সময় ছিলো এবং আগামীতেও থাকবে আমি এই আশা করি।

প্রধান বক্তা হিসেবে নুর ইসলাম সরদার বলেন, আমরা নেতৃত্ব চাই না দলকে শক্তিশালী করতে চাই। কারো ব্যক্তি স্বার্থ হাসিলের জন্য আপনারা ব্যবহার হবেন না। দেশ ও দলের স্বার্থে নিজেকে বিলিয়ে দিন।

মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল বলেন, আমি মহানগর বিএনপির নেতৃবৃন্দদের আহবান করবো যারা দলের মধ্যে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে তাদের বিরুদ্ধে সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে ব্যবস্থা গ্রহন করুন। এদের মধ্যে কিছু সুযোগ সন্ধানী লোক অর্থের লোভে ঘুর ঘুর করছে। বিএনপির এই ক্রান্তি লগ্নে দলকে বিভক্তি করার জন্য মহানগর বিএনপির ব্যানারে কিভাবে সভা সমাবেশ করে। দেশনেত্রী কয়েক দিনের মধ্যে দেশে ফিরবেন আমি মহানগর বিএনপির নেতৃবৃন্দদের কাছে আহবান করবো এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করুন নতুবা আগামী ১৫ দিনের মধ্যে আমি পদত্যাগ করবো। যারা বিএনপির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে তাদের রুঁখে দাঁড়ান।

মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এড.আবু আল ইউসুফ খান টিপুর সঞ্চালনায় এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি ফখরুল ইসলাম মজনু, বিএনপি নেতা এড. শিমু, হানফি সরদার, অহিদুল ইসলাম ছক্কু, মাহমুদুর রহমান, জাহাঙ্গীর সরদার, বাদশা সরদার, কামরুল ইসলাম কামু, মহিলা নেত্রী জোবায়েদা নাছরিন, মহানগর স্বেচ্ছা সেবক দল নেতা আবু আল বেলাল খান, রোমা, আব্দুর রশিদ হাওলাদার, আলী ইমরান শামীম, মানকি সরকার, ছাত্রদল নেতা সাইদুর রহমান আরিফ, সিজান প্রমূখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here