নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: কার্তিক শেষে বুধবার থেকে শুরু হয়েছে অগ্রহায়ণ। এ সময় শীতটা একেবারে দোরগোড়ায় থাকে। হেমন্তের আকাশ থাকে হালকা সাদা মেঘে ভরা। কিন্তু সে আকাশে ভারী মেঘ।

বুধবার (১৫ নভেম্বর) সারাদেশের মতো নারায়ণগঞ্জেও ঝরেছে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি। দিনভর গুঁিড় গুঁড়ি বৃষ্টিতে ব্যাপক ভোগান্তি নেমে এসেছে নারায়ণগঞ্জের সাধারণ মানুষের মাঝে। তাপমাত্রা খুব একটা না কমলেও বৃষ্টির কারণে এবং দিনভর সূর্যের দেখা না পাওয়ার সঙ্গে হু হু বাতাস শীতের আগমন বার্তা জানিয়ে দিচ্ছে সবাইকে। ফলে ছিন্নমূল ও খেটে খাওয়া মানুষদের মাঝে নেমে আসে ভোগান্তি।

আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপের কারণে এভাবে বৃষ্টি পড়ছে। এই বৃষ্টি আরও দু-এক দিন থাকতে পারে। বৃষ্টি চলে গেলে জেঁকে বসতে পারে শীত।

এদিকে সকাল থেকে শুরু হওয়া এ বৃষ্টির কারণে অনেকটাই দূর্ভোগ নেমে আসে নারায়ণগঞ্জের সাধারণ মানুষের মাঝে। বিশেষ করে ছিন্নমূল ও খেটে খাওয়া মানুষদের দুর্ভোগ বেড়ে যায় কয়েকগুন। একদিকে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি অন্যদিকে ঠান্ডা বাতাসে জুবুথুবু হয়ে পড়েন তাঁরা।

নগরীর কালীরবাজার এলাকায় রিক্সা চালক মোতালেব মিয়া বলছিলেন, এ বছর একটু আগেই মনে হয় শীত আইসা পরবো, বৃষ্টির লক্ষণে তাই মনে হচ্ছে। বৃষ্টিতে রিকশা চালাতেও কষ্ট হচ্ছে। কিন্তু তারপরেও পেটের খাওয়ার জোগাতে রিকশা নিয়ে বাইর হয়ছি।

এদিকে সারাদিনের গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির কারনে নারায়ণগঞ্জ শহওে ফুটপাতের হকাররা বেকার সময় কাটিয়েছে দিনভর। পথ চলতি মানুষকেও পরতে হয়েছে নানা বিড়ম্বনায়। বৃষ্টির কারনে শহরে রিক্সার পরিমান ছিলো কম, তাই ভাড়াও হাঁকা হয়েছে কয়েক গুণ। বাধ্য হয়ে দ্বিগুণ-তিনগুণ ভাড়া দিয়ে যেতে হয়েছে গন্তব্যে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here