নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নারায়ণগঞ্জের সদর থানাধীণ দেওভোগ পাক্কা রোডস্থ খানকা গলিতে পুর্ব শত্রুতার জের ধরে ৪টি বাড়িতে হামলা চালিয়ে বিপুল পরিমাণ ক্ষতি সাধন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে এড. গালিব বাহিনীর বিরুদ্ধে। চারটি বাড়িতেই ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাট চালানো হয় বলে জানা যায়। এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় জুম্মন হোসেন বাদী হয়ে এড. গালিবসহ ১৬ জনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত আরো ১০/১২ জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং ৪১, তারিখ ১৭-১০-২০১৭।

মামলা সূত্রে জানা যায়, একটি মামলার ভয়ে বেশ কিছুদিন পলাতক থেকে হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়ে জুম্মন হোসেন বাড়িতে প্রবেশ করতে গেলে বাধা প্রদান করেন গালিব বাহিনীর লোকজন। অবশেষে গতকাল সোমবার সকালে সদর থানা পুলিশের সহযোগীতায় জুম্মন ও তার পরিবার নিজ বাড়িতে প্রবেশ করতে গিয়ে বাড়িতে তালা ঝুলানো দেখতে পান। সদর থানার উপ-পরিদর্শক পিন্টু সরকারের উপস্থিতিতে তালা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে। নিজ নিজ ঘরে প্রবেশের পর তারা দেখতে পান ব্যাপক ভাংচুর ও লুটপাটের মহাযজ্ঞের দৃশ্য।

সূত্র আরো জানায়, বেশ কিছুদিন যাবৎ জুম্মন হোসেন ও তার পরিবারের সাথে গালিব বাহিনীর মধ্যে জমি সংক্রান্ত বিষয়ে বিরোধ চলে আসছিলো। এর প্রেক্ষিতে উভয় পক্ষই উভয় পক্ষের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা দায়ের করে। এর কিছুদির পর দুর্বৃত্তের হামলায় আহত হন এড. গালিব ও তার সহযোগী দিপু। এই ঘটনার পর জুম্মন হোসেন ও তার পরিবারের ১১ সদস্যের নাম উল্লেখ করে প্রতিপক্ষ এড. গালিবের পক্ষ থেকে আরেকটি মামলা দায়ের করা হয়। ঐ মামলায় বেশ কিছুদিন পলাতক থেকে অবশেষে হাইকোর্ট থেকে জুম্মন হোসেন ও তার পরিবারের ১১ সদস্যদের ২ মাসের অস্থায়ী জামিন প্রদান করা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here