নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নগরীর বাজারগুলোতে শীতকালীন সবজির আগমনে কিছুটা কমেছে সবজির দাম। কয়েক মাস ধরে ৫০ থেকে ৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হওয়া কিছু সবজি এখন ৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তবে দাম বেড়েছে ব্রয়লার মুরগী ও পেঁয়াজের। গত সপ্তাহের তুলনায় ব্রয়লার মুরগীর দাম কেজিতে ১০ টাকা এবং পেঁয়াজের দাম ৫ টাকা বেড়েছে।
শুক্রবার (২০ অক্টোবর) নগরীর দ্বিগুবাবুর বাজার, মীনা বাজার, কালীরবাজার ঘুরে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে এ সব তথ্য পাওয়া গেছে।

ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, গত সপ্তাহের তুলনায় পটল, ঝিঙা, করলা, ঢেঁড়স, ধুন্দল, বেগুনসহ প্রায় সবকটি সবজির দাম কিছুটা কমেছে। তবে দুই দিন ধরে যেভাবে বৃষ্টি হচ্ছে, এ ধারা অব্যাহত থাকলে আবার সবজির দাম বাড়তেও পারে।

তারা জানান, বাজারে সবজির সরবরাহ কিছুটা বেড়েছে। কিছু কিছু শীতকালীল সবজি বাজারে এসেছে। তবে পুরোপুরি সব সবজি এখনও বাজারে আসেনি। শীতের সবজির সরবরাহ বাড়লে দাম অনেকটাই কমে যাবে।

দ্বিগুবাবুর বাজারে দেখাগেছে, সাদা ব্রয়লার মুরগী বিক্রি হচ্ছে ১৩৫ থেকে ১৪০ টাকা কেজি দরে। যা আগের সপ্তাহে ছিল ১২৫ থেকে ১৩০ টাকা। অর্থাৎ কেজিতে বেড়েছে ১০ টাকা।

আর লাল লেয়ার মুরগী বিক্রি হচ্ছে ১৬০ টাকা থেকে ১৬৫ টাকা কেজি দরে। যা আগের সপ্তাহে ছিল ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা কেজি। সে হিসাবে লাল লেয়ার মুরগির দাম কেজিতে বেড়েছে প্রায় ২০ টাকা।

অপরদিকে, বাজার ও মানভেদে দেশী পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৫৫ থেকে ৬০ টাকা কেজি দরে। যা গত সপ্তাহে ছিল ৫০ থেকে ৫৫ টাকা কেজি। আর আমদানী করা ভারতীয় পেঁয়াজ কেজিতে ৫ টাকা বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকায়।

প্রতি কেজি টমেটা বিক্রি হচ্ছে ১২০ থেকে ১৩০ টাকায়, যা গত সপ্তাহে ছিল ৯০ টাকা থেকে ১০০ টাকা। ৮০ টাকা কেজি শিমের দাম বেড়ে হয়েছে ১০০ টাকা থেকে ১১০ টাকা।

দাম কমার তালিকায় থাকা সবজির মধ্যে প্রতি কেজি পটল বিক্রি হচ্ছে ৩৫ থেকে ৪০ টাকা। আগের সপ্তাহে ছিল ৪৫ থেকে ৫০ টাকা। করলার দাম কেজিতে ১০ থেকে ১৫ টাকা কমে বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকায়।

ধুন্দল ও ঝিঙা বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৫০ টাকা কেজি দরে। আগের সপ্তাহে এ সবজি দুটির দাম ছিল ৫০ থেকে ৬০ টাকা কেজি। বেগুন ও ঢেঁড়স আগের সপ্তাহের মতোই ৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

এছাড়া গত সপ্তাহের মতোই এই সপ্তাহেও কাঁচামরিচ বিক্রি হচ্ছে ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা কেজি দরে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here