নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডিঃ নগরীর বিবি রোডে ফুটপাত হকার মুক্ত রাখার লক্ষ্যে কঠোর অবস্থানে অনড় রয়েছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন। পাশাপাশি কঠোর অবস্থানে রয়েছে প্রশাসন। নগরীর বিবি রোডের কোথাও কোন হকার না বসলেও ফুটপাত জুড়ে রয়েছে মোটর সাইকেলের অবৈধ পার্কিং যা কিনা নগরবাসীদেরেকে চলাচলে চরম বিঘ্ন ঘটাচ্ছে। আর এ বিষয়ে সিটি কর্পোরেশন কিংবা পুলিশ প্রশাসনের কোন পদক্ষেপ না দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে নগরবাসী।

শনিবার (২০জানুয়ারী) সরেজমিন ঘুরে নগরী বিভিন্ন পয়েন্টে এমনই চিত্র দেখা গেল। নগরীর বিবি রোডের ২নং রেল গেইট, চাষাড়া, উকিলপাড়া এলাকার ফুটপাতে এসব অবৈধ মোটর সাইকেলের পাকিং দেখা গেছে। ফুতপাতে কোন হকার না বসার কারনে নগরীর মার্কেট এবং বিপনী বিতানগুলোর সামনে মোটর সাইকেলে অবৈধ পার্কিং ছিল যথেষ্ট পরিমানে। ফুটপাত খালি পেয়ে আবার অনেককেই দেখা গেছে মোটর সাইকেল ফুটপাতের উপরে উঠিয়ে দিয়ে চালাচ্ছেন। সচেতন নগর বাসী মনে করে, বিবি রোডের ফুটপাত হকারমুক্ত হওয়ায় তারা নির্বিঘ্ন ও কম সময়ে যাতায়াত করতে পারছেন। তাছাড়া ছিনতাইয়ের হাত থেকে রক্ষা এবং মহিলারা স্বাচ্ছন্দে হাটাচলা করছেন ফুটপাত দিয়ে। নগরবাসীর একটাই আশঙ্কা ফুটপাতের এই সুন্দর পরিবেশ যেন অবৈধ মোটর সাইকেল পার্কিংয়ের কবলে না পরে।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি ২০১৭ সালের গত ২৫ ডিসেম্বর হতে নগরীর বিবি রোডে সকল প্রকার হকার বসার নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিলেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন। হকার নেতারা দফায় দফায় বিষয়টি নিয়ে জেলা প্রশাসক, জেলা পুলিশ সুপার এবং নাসিক মেয়রের সরনাপন্ন হয়েও কোন প্রকার সুরাহা হয়নি। সর্বশেষ নারায়ণগঞ্জ-৪ (ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব এ,কে,এম শামীম ওসমানের কাছে হকার নেতারা কিছুদিনের জন্য ফুটপাতে বসে শীতের মালামাল বিক্রি করার অনুমতি চেয়েছিল। তার কিছুটা সমাধান মিললে হকাররা গত ১৬ জানুয়ারী বিকাল ৫টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত তাদের ব্যবসা পূনরায় চালাতে পারবে এমন আশ্বাস পেলে ওইদিন বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে নাসিক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী নগরবাসীকে সঙ্গে নিয়ে নাসিক নগর ভবন থেকে পায়ে হেটে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে আসলে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার সম্মূখীনের ঘটনায় মেয়র সহ মারাত্মক আহত হয়েছিশেন প্রায় অর্ধশতাধিক ব্যাক্তি। সেই ঘটনার পর থেকে নারায়ণগঞ্জ নগরীর সর্বত্র জুরে এখন বিরাজ করছে এক থমথমে পরিস্থিতির। ঘটনার পর নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন এবং প্রশাসন এর পক্ষ থেকে ঘোষানা করা হয়েছিল প্রতিদিন সকাল ৫টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত নগরীর বঙ্গবন্ধু রোড ব্যাতিত যে কোন স্থানে হকাররা তারে ব্যবসা পরিচালনা করতে পারবেন। সেই ঘোষনায় নগরীর হকাররা একটুও কর্নপাত করেনেনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here