নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নানান ফুল আর রঙিন কাগজের নকশায় সাজানো ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। বছরের অন্যদিনের চেয়ে এদিন একটু বেশ পরিপাটি করেই সাজানো হয়েছে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানকে। দেখলেই মনে হয় যেন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কোন উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। দোকানে ক্রেতা আসতেই সানন্দে অভ্যার্থনা জানাচ্ছেন বিক্রেতারা-‘আসুন, বসুন’।
এরপর ক্রেতার আপ্যায়নে মুখে তুলে দেয়া হচ্ছে ঠান্ডা পানীয় কিংবা রসগোল্লা। তারপর ব্যবসায়ী জানান দিচ্ছেন পুরোনো বছরের বকেয়ার হিসেব। সেই হিসেব চুকে হালখাতায় নতুন হিসেব লিখিয়ে ক্রেতা ফিরছেন নিজের গন্তব্যে।
শনিবার (১৫ এপ্রিল) সকাল ৮ টা থেকেই হালখাতাকে ঘিরে এমন উৎসবের আমেজ বিরাজ করে নারায়ণগঞ্জ নগরীর ভোগ্যপণ্যের অন্যতম পাইকারী বাজার নিতাইগঞ্জ ডাইলপট্টীতে।
এখানকার প্রায় কয়েক হাজার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অনুষ্ঠিত হয় হালখাতা উৎসব। এর আগে সকাল থেকে ইসলাম ধর্মের অনুসারী ব্যবসায়ীরা দোয়া-দরুদ পাঠ এবং হিন্দু ধর্মের অনুসারী ব্যবসায়ীরা সিদ্ধিদাতা গণেশের পূজা-অর্চনার মাধ্যমে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সফলতা কামনা করে হালখাতা খোলেন।
এব্যাপারে নগরীর ডাইলপট্টী এলাকার ব্যবসায়ী ও লোড-আনলোড শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মো: মাসুদুর রহমান মাসুদ নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডিকে বলেন, নববর্ষের দিনে প্রতিবছরই আমরা হিন্দু মুসলমান ব্যবসায়ীরা নিজেদের দোকানে হালখাতা উৎসব উদযাপন করে থাকি। সন্ধ্যার পর ব্যবসায়ীরা একে অপরের ঘরে গিয়ে নববর্ষের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।
মেসার্স নরেন্দ্র সূত্রধর এন্ড সন্স’র স্বত্তাধিকারী তারক নাথ সূত্রধর জানান, পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে এদিন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে সিদ্ধিদাতা গণেশের পূজা অর্চ্চনা করে হালখাতা খোলা হয়েছে। ক্রেতাসহ দোকানে আগত বন্ধু বান্ধব আত্মীয় স্বজনদের মিষ্টি খাওয়ানো হয়েছে।
এছাড়াও সূতা, রং, ক্যামিকেলের জন্য বিখ্যাত নগরীর অন্যতম ব্যবসায়ীবক এলাকা টানবাজারেও এদিন প্রতিটি দোকানে হালখাতা উৎসব পালিত হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here