নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নতুন বছরের প্রথম মাসেই ঘুঁচতে যাচ্ছে নারায়ণগঞ্জ এবং বন্দরের মধ্যকার দূরত্ব। বন্দর-নারায়ণগঞ্জে সরাসরি যাতায়াত এখন আর কোন স্বপ্ন না থেকে বাস্তবে পরিণত হতে যাচ্ছে। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই যানবাহনে করে ফেরী যোগে বন্দর-নারায়ণগঞ্জ যাতায়াত করা যাবে।
রবিবার (৩১ ডিসেম্বর) সকাল থেকে নবীগঞ্জ-হাজীগঞ্জ খেয়াঘাট দিয়ে ফেরী যাতায়াতের জন্য শীতলক্ষ্যার নদীর পূর্ব ও পশ্চিম পাড়ে রাস্তা নির্মাণ কাজ শুরু হয়েছে।

এদিকে রবিবার বিকেল ৩টায় ফেরীতে যানবাহন উঠা-নামার জন্য রাস্তা নির্মাণ কাজ সরেজমিনে পরিদর্শন করেছেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান।

এ সময় তিনি নির্মাণ কাজের ছোট খাট সমস্যার জানতে পারেন। তাৎক্ষনিক ভাবে তিনি একজন ব্যবসায়ী এবং নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন কর্তৃপক্ষের সাথে মোবাইল ফোনে কথা বলে দ্রুত সমস্যার সমাধানের ব্যবস্থা করেন।

সরেজমিনে পরিদর্শনকালে তাঁর সাথে ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয় পার্টির আহবায়ক আবুল জাহের ও মহানগর শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান মুন্না।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রৌকশলী আলীউর হোসেন, উপ-বিভাগীয় প্রৌকশলী আশফিয়া সুলতানা, উপ সহকারী প্রৌকশলী ফিরোজ আহম্মেদ এবং রাস্তার নির্মাণ কাজের ঠিকাদার নজরুল ইসলাম বাদল।

প্রসঙ্গত গত ২৩ নভেম্বর বন্দরে সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানের ব্যক্তিগত তহবিল থেকে নির্মিত, শামসুজ্জোহা এমবি ইউনিয়ন উচ্চ বিদ্যালয়, নাগিনা জোহা উচ্চ বিদ্যালয় এবং শেখ জামাল উচ্চ বিদ্যালয় নামের ৩টি স্কুলের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে ছিলেন সেতুমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। দলের সাধারণ সম্পাদক হওয়ার পর নারায়ণগঞ্জে সেটির ছিল তাঁর প্রথম আগমন। ওই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শীতলক্ষ্যা নদীতে নবীগঞ্জ-হাজীগঞ্জ খেয়াঘাট দিয়ে চতুর্থ শীতলক্ষ্যা সেতু নির্মানের জন্য জোরালে দাবী তুলে বন্দরবাসী। জনগনের দাবীকে আমলে নিয়ে ১৫ দিনের মধ্যে নবীগঞ্জ খেয়াঘাট দিয়ে ফেরী সার্ভিস চালু করার ঘোষণা দিয়ে ছিলেন। নবীগঞ্জ দিয়ে সেতু নির্মাণ না হওয়া পর্যন্ত সেখানে ফেরী চলাচল অব্যাহত থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here