নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় নারায়ণগঞ্জের জনসাধারণকে ঘরে ফেরাতে সেনাবাহিনীর এ্যাকশন শুরু হয়ে গেছে। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই শহরের জন গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে মহড়া দিয়ে জনগনসাধারণকে সচেতন করতে নানা তৎপরতা দেখা গেছে সেনাবাহিনীর।


বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শহরের বিভিন্ন স্থানে টহল এবং সচেতনতামূলক প্রচারণা চালাচ্ছে সেনা সদস্যরা। পাশাপাশি জরুরী প্রয়োজন ছাড়া কেউ বের হলে সতর্ক করে দিয়ে ফিরিয়ে দেয়া হচ্ছে বাড়িতে। করোনা সংক্রমন রোধে এরআগেও জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের সাথে কাজ করেছেন সেনাবাহিনীর সদস্যরা। তবে এদিন থেকে গাড়িবহর নিয়ে টহল সহ চেকপোস্ট বসিয়ে কঠোর অবস্থান নিয়েছে সেনা সদস্যরা। এজন্য জনসাধারণের বাড়ি থেকে বের হওয়া সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।


সাংবাদিকদের সাথে এক ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৯ পদাতিক ডিভিশনের ক্যাপ্টেন কানিজ ফাতেমা মাহজাবিন বলেন, আমাদের প্রধান উদ্দেশ্য হলো শহরের বিভিন্নস্থানে যেন জনসমাগম না হয় সে লক্ষ্যে কাজ করা। গতকাল থেকে আমাদেরকে যে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে সেই নির্দেশ মোতাবেক আরো কঠোর হয়েছি। আমরা সিভিল প্রসাশনকে মূলত সহযোগীতা করছি। সুতরাং সকলকে সচেতন হতে হবে। যেন আমাদের কঠোরতা দেখাতে না হয়।

উল্লেখ্য, গত ১ এপ্রিল আন্তঃবাহিনী জনসংযোগে পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) এক বিজ্ঞপ্তিতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে ও হোম কোয়য়ারেন্টাইন নিশ্চিতে কঠোর হওয়ার কথা জানানো হয়। সেখানে বলা হয়, সরকার প্রদত্ত নির্দেশাবলী অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। গত ২৪ মার্চ আইএসপিআরের পক্ষ থেকে নারায়ণগঞ্জ জেলায় সেনাবাহিনী পাঠানো হয়। এরপর থেকে এইড টু সিভিল পাওয়ারের আওতায় জেলায় করোনা ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে স্থানীয় প্রশাসনকে সহায়তায় প্রয়োজনীয় সমন্বয় করছে সেনাবাহিনী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here