নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা কৃষকলীগের সভাপতি নাজিম উদ্দিন কর্তৃক সাংবাদিকদের ঢালাও ভাবে গালাগাল ও প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যার হুমকির প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।
মঙ্গলবার (১৭ অক্টোবর) সকাল ১১টায় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ প্রধান সড়কের পাশে অবস্থিত ফতুল্লা থানা গেইট সংলগ্ন এলাকায় ফটো জার্নালিষ্ট এসোসিয়শনের নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক এনামুল হক সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকরা।

সভাপতির বক্তব্যে এনামুল হক সিদ্দিকী বলেন, সাংবাদিকরা হচ্ছে সমাজের আয়না। সাংবাদিকরা তাদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সত্য প্রকাশে সর্বদাই সচেষ্ট থাকে। প্রভাবশালীদের রক্ত চক্ষুকে উপেক্ষা করে বিভিন্ন অন্যায়, অপকর্ম তাদের লিখনির মাধ্যমে সাধারন মানুষকে সচেতন করার পাশাপাশি আইনশৃংখলা নিয়ন্ত্রনে রাখার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

সাংবাদিকরা সাদাকে সাদা আর কালোকে কালো বলবে এটাই স্বাভাবিক। সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন দীর্ঘদীন ধরে অপকর্মের মাধ্যমে অবৈধ ভাবে কয়েক কোটি টাকার মালিক বনে গেছেন। দারিদ্র পরিবারের সন্তান হওয়ার পরেও ক্ষমতার অপব্যবহারের মাধ্যমে অল্প কিছুদিনের ব্যবধানে আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে যাওয়ায় মানুষকে সে আর মানুষ বলে মনে করেন না। দুনির্তীবাজ নাজিম উদ্দিন ক্ষমতার অপব্যবহারের মাধ্যমে সরকারী জমি দকল, সরকারী গাছ কর্তন, অটো রিকশায় চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অপকর্মের ফিরিস্তি সাংবাদিকরা তাদের লেখনির মাধ্যমে তুলে ধরায় ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে নাজিম উদ্দীন। এর পর পরই যেখানে সাংবাদিকদের দেখা ম্ত্রাই অশ্লীল ভাষায় গালাগাল করতে থাকে।

এনামুল হক সিদ্দিকী নাজিম উদ্দিনকে হুশিয়ারী উচ্চারন করে বলেন, এখনো সময় আছে সাংবাদিকদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিজের ভূল সংশোধন করেন অণ্যথায় প্রকাশ্যে সাংবাদিকদের হত্যার হুমকির দুঃসাহস দেখানোর মতো ক্ষমতা কোথা থেকে পেলো এর নারী নক্ষত্র তুলে ধরা হবে।

সিনিয়র সাংবাদিক মহসীন আলম বলেন, সাংবাদিকদের প্রকাশ্যে হুমকি প্রদানের দুঃসাহস নাজিম উদ্দীনের বড় ভূল। সাংবাদিকদের হত্যার হুমকির পরিনতি কতটা ভয়াবহ হতে পারে অতীত দেখলেই নাজিম উদ্দিন বুঝতে পারবেন। এখনো সময় আছে সাংবাদিকদের কাছে নাজিম উদ্দিনের ক্ষমা চাওয়ার মাধ্যমে অপকর্ম থেকে সরে দাড়ানোর।

সাংবাদিক সহিদুল ইসলাম সহিদ জানান, সাংসদ শামীম ওসমান সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ, ভূমিদস্যুতার বিরুদ্ধে যেখানে অবস্থান নিয়েছেন ঠিক তার উল্টোপথে এগুচ্ছেন সন্ত্রাসী নাজিম উদ্দিন। তাই সাংসদ শামীম ওসমান ও দলের স্বার্থে বিতর্কিত নেতা নাজিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে দল দ্রুত ব্যবস্থা নিবেন এমনটাই প্রত্যাশা।

সাংবাদিক রনি কুমার দাস তার বক্তব্যে বলেন, নারায়ণগঞ্জ-৪(ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ) আসনের সাংসদ একে এম শামীম ওসমান ইতিমধ্যে ব্যাপক উন্নয়নের মাধ্যমে সাধারন মানুষের মনিকোঠায় জায়গা করতে সক্ষম হয়েছে। সে সাথে নির্বাচনী এলাকায় মাদক ও সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে জিহাদের ঘোষনাও প্রদান করেছেন। অথচ তারই অনুগামী নেতা সন্ত্রাসী নাজিম উদ্দীন সন্ত্রাসী ভূমিকায় সাংবাদিকদের প্রকাশ্যে হত্যার হুমকি দেওয়ার ঘটনায় দলের ভাবমূতি ক্ষুন্ন করার সামিল। তাই দলের ভাবমূতি রক্ষার্থে সন্ত্রাসী নাজিম উদ্দীনের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ এবং সাংসদ শামীম ওসমান ব্যবস্থা নিবেন এমনটাই প্রত্যাশা সকল সাংবাদিকদের।

ফটো সাংবাদিক সোহেল সরকার বলেন, প্রথমেই আমি সন্ত্রাসী নাজিম উদ্দিনকে প্রশ্ন করতে চাই সাংবাদিকদের হুমকি প্রদানের এত বড় দুঃসাহস কোথায় পেলো? নাজিম উদ্দিন তো শুধুমাত্র ভাইস চেয়ারম্যান এর চেয়েও ক্ষমতাধর ব্যাক্তিরাও সাংবাদিকদের হুমকি দিয়ে পাড় পাননি। আজকে সাংবাদিকদের হুমকি দিয়ে নাজিম উদ্দিন পাড় পেয়ে গেলে ভবিষত্যে আবারো আমার আরেক সাংবাদিক ভাইকে হত্যার হুমকি প্রদান করবে তাই। তাই সাংবাদিকদের পূনরায় হুমকি দেওয়ার আগে সন্ত্রাসী নাজিম উদ্দীনের কালো চেহারার বিষদাত ঐক্যবদ্ধভাবে ভেঙ্গে দেওয়ার জন্য যা যা করনীয় সব কিছু করার ঘোষনা প্রদান করেন।

মাইটিভির ফতুল্লা প্রতিনিধি সাহাব উদ্দিন বলেন, নাজিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি, ভূমি দস্যুতাসহ বিভিন্ন অপকর্মের একাধীক অভিযোগ রয়েছে। তার এই অপকর্ম গুলো সংবাদকর্মীরা সংবাদের মাধ্যমে মানুষের কাছে তুলে ধরায় সে আরো বেশি হিংস্র হয়ে সাংবাদিকদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করাসহ হত্যার হুমকি দিয়েছে। তাই আমারা সন্ত্রাসী নাজিম উদ্দিনের শাস্তি দাবী করছি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন অনলাইন নিউজ পোর্টাল সময় নারায়ণগঞ্জ ডট কম এর সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান খোকা, সময় নারায়ণগঞ্জ ডট কম এর প্রকাশক আরিফুর রহমান, ব্যবস্থাপনা পরিচালক সহিদুল ইসলাম সহিদ, অনলাইন নিউজ পোর্টাল নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডির হেড অব নিউজ মাসুদ রানা রনি, অনলাইন নিউজ পোর্টাল ফটো নারায়ণগঞ্জ এর প্রকাশক ও সম্পাদক মোঃ জনি, অনলাইন নিউজ পোর্টাল এটুজেড এর সম্পাদক রফিকউল্লাহ রিপন, ফটো সাংবাদিক সুলতান, ফটো সাংবাদিক কাইয়ুম, সাংবাদিক শরীফুল, এসএ টিভির ক্যামেরাম্যান আলমগীর, সংবাদ নারায়ণগঞ্জ এর সম্পাদক দুলাল আহাম্মেদ, মাই টিভির ফতুল্লা প্রতিনিধি সাহাব উদ্দিন, ফটো সাংবাদিক কাইয়ুম, ফতুল্লা রিপোর্টাস ক্লাবের সদস্য মোস্তাক আহাম্মেদ সুমন জন্মভূমি পত্রিকার ফতুল্লা প্রতিনিধি মোঃ মামুনুর রশীদ মুন্না, সাংবাদিক রিয়াজুল ইসলাম আশিক, প্রমুখ।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here