নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: রাজধানীর পার্শ্ববর্তী জেলা হিসেবে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে জন্মস্থান নারায়ণগঞ্জ বরাবরই গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু এই নারায়ণগঞ্জে আওয়ামীলীগের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারনে বরাবরই কেন্দ্র দলটির শীর্ষস্থানীয় নেতৃবৃন্দরা হচ্ছেন অবমূল্যায়িত। কেন্দ্রীয় কমিটিতে ঠাঁই পাওয়াসহ সরকারের মন্ত্রীত্ব ভোগেরও সুযোগ পায়নি অদ্যবধি নারায়ণগঞ্জের নেতৃবৃন্দরা।
তাই আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র অভ্যন্তরীণ কোন্দল নিরসনের পাশাপাশি দলীয় নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ করার লক্ষ্যে এবার নারায়ণগঞ্জে সাংগঠনিক সফরে আসছে দলটির সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে ১৫ সদস্যের টিম।

কিন্তু ইতিমধ্যেই সাংগঠনিক টিম দায়িত্বপ্রাপ্ত বিভিন্ন জেলায় সফর শুরু করলেও নারায়ণগঞ্জে সফরের ক্ষেত্রে পরিলক্ষিত হয়েছে ধীরগতি বলে মন্তব্য করেছেন তৃণমূলের নেতৃবৃন্দরা।

কারন গত ২৬ জানুয়ারী থেকে কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের এই সাংগঠনিক টিম বিভিন্ন জেলায় সফর শুরু করলেও গুরুত্বপূর্ণ জেলা হিসেবে নারায়ণগঞ্জে কবে নাগাদ সফরে আসবেন, সেই ব্যাপারে এখনো স্থানীয় নেতৃবৃন্দকে কোন সময়সূচী দেননি টিম প্রধান ওবায়দুল কাদের। ফলে কবে নাগাদ নারায়ণগঞ্জে আওয়ামীলীগের কর্মী সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে, তা নির্দিষ্ট করে বলতে পারছেন দলটির শীর্ষস্থানীয় নেতৃবৃন্দরা।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাই নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডিকে জানান, ‘নারায়ণগঞ্জে কবে নাগাদ কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দরা সাংগঠনিক সফরে আসবেন, সেই ব্যাপারে এখনো কোন আলোচনা আমাদের সাথে করেনি। তবে সবসময় প্রস্তুত রয়েছি। কেন্দ্রীয় টিম যেদিন দিনক্ষন চূড়ান্ত করবে, আমরা তখনই সকল আয়োজন সম্পন্ন করবো।’

দলীয় সূত্রে জানাগেছে, আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্যদের সমন্বয়ে গঠিত টিম আগামী একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পূর্ব মুহূর্ত পর্যন্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত জেলা, মহানগর, উপজেলা, থানা পর্যায়ে সাংগঠনিক সফরে যাবেন এবং স্থানীয় আওয়ামী লীগ কর্তৃক আয়োজিত বিভিন্ন রাজনৈতিক কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবেন।

মূলত, আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী গণতন্ত্রকামী প্রগতিশীল শক্তির বিজয় নিশ্চিত করতে এই সাংগঠনিক সফর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে প্রত্যাশা করেছেন দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা। তাই একাদশ নির্বাচনের পূর্বে কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের শীর্ষস্থানীয়দের নেতৃত্বে গঠিত ১৫টি টিমকে জেলা ভিত্তিক সাংগঠনিক সফর শুরু করার নির্দেশ দেন তিনি।

নারায়ণগঞ্জ জেলা সাংগঠনিক টিমের প্রধান হচ্ছেন, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এমপি।

বাকী সদস্যরা হলেন, অ্যাড. সাহারা খাতুন এমপি, অ্যাড. আব্দুল মান্নান খান, মোজাফফর হোসেন পল্টু, মুকুল বোস, ডা. দীপু মণি এমপি, ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, হাবিবুর রহমান সিরাজ, নুরুল মজিদ হুমায়ুন এমপি, আখতারুজ্জামান, ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা এমপি, অ্যাড. মৃণাল কান্তি দাস এমপি, অ্যাড. কামরুল ইসলাম এমপি, সিমিন হোসেন রিমি এমপি, অ্যাড. এবিএম রিয়াজুল কবির কাওছার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here