নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: আবারো বেড়েছে চাল ও ভোজ্যতেল সয়াবিনের দাম। এক সপ্তাহের ব্যবধানে বিভিন্ন ধরনের চাল কেজিতে বেড়েছে দুই টাকা। মোটা চালের দামও বাড়তির দিকে। একই সাথে বোতলজাত ও খোলা সয়াবিন তেলের দামও বেড়েছে লিটারে চার থেকে ১০ টাকা।
সচেতন মহলের দাবী, উচ্চ পর্যায়ে ঠিকমত তদারকি না থাকায় চাল ও ভোজ্যতেলের বাজার বার বার অস্থির হচ্ছে। আর মধ্যস্বতভোগীদের কারনে সাধারণ মানুষ কষ্ট পাচ্ছে।

শুক্রবার (১৬ জানুয়ারী) নারায়ণগঞ্জ শহরের নিতাইগঞ্জ পাইকারী আড়ৎ ও দ্বিগুবাবুর বাজারে খুচরা দোকান গুলো ঘুরে এমনই তথ্য জানাগেছে।

বাজার ঘুরে জানাগেছে, বর্তমানে নাজিরশাইল চাল মানভেদে ৪৮ টাকা থেকে ৫২ টাকায়, মিনিকেট ৫২ থেকে ৫৬ টাকায় ও স্বর্ণা চাল বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪৪ টাকা কেজি দরে।

খুচরা ব্যবসায়ীরা জানান, বাজারের বিভিন্ন পাইকারী দোকান থেকে চাল কিনে এনে বাজারে বিক্রি করছি। মূলত সেখানেই দাম বাড়তি রাখছে। ১ মাস আগেও যে মিনিকেট বস্তা প্রতি ২২৫০ টাকা কিনে আনতাম, সেটা এখন ২৪৫০ টাকার কমে দিচ্ছে না। তাহলে আমরা খুচরা বাজারে কিভাবে ২৬০০ টাকার কমে বিক্রি করবো। আর পাইজাম চাল আগে কিনে আনতাম ১৯০০ বা ২০০০ টাকায় কিন্তু এখন সেটা কিনতে হচ্ছে ২১৫০ টাকায়। সেই কারনে আমাদের চালের দাম বাড়তি হিসাবে বিক্রি করতে হচ্ছে।

এদিকে, এক সপ্তাহের ব্যবধানে বেড়েছে সয়াবিন তেলের দাম। লিটারে দুই থেকে ৫ টাকা বেড়েছে।

নিতাইগঞ্জে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের বেশ কয়েকটি দোকান ঘুরে জানাগেছে, বাংলাদেশ এডিবল অয়েল কোম্পানির রূপচাঁদা ব্র্যান্ডের সয়াবিন তেল গত দুই সপ্তাহে লিটারে চার টাকা বেড়ে একশ টাকায় পৌঁছেছে। সিটি গ্রুপের তীর ব্র্যান্ডের তেলও প্রতি লিটার ৯৪ টাকা থেকে বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ৯৮ টাকায়।

খুচরা ও পাইকারী বিক্রেতা রিপন সাহা জানান, ‘বোতলজাত সয়াবিনের পাশাপাশি খোলা পাম, কোয়ালিটি ও সয়াবিন তেলের দামও কেজিতে ৮ টাকা করে বেড়েছে। মিল পর্যায়ে দাম বেড়ে যাওয়ায় খোলা বাজারেও তেলের দাম বেড়ে গেছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here