নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নারায়ণগঞ্জে বেড়াতে এসে একদল ছিনতাইকারীর কবলে পরে সর্বস্ব খুইয়েছেন একটি ভারতীয় পরিবার। পাশাপাশি জীবন বাঁচাতে রিক্সা থেকে লাফিয়ে রাস্তায় পড়ে গুরুতর আহত হন মা ও মেয়ে।
মঙ্গলবার (৩ অক্টোবর) সকাল পৌনে ৬ টার দিকে শহরের মিশন পাড়া রোডে এ ঘটনা ঘটে। ছিসতাইকারীদের কবলে পড়ে পাসপোর্ট, মুঠোফোন, ভারতীয় পরিচয়পত্রসহ গুরুত্বপূর্ণ একাধিক জিনিসপত্র হারিয়ে এখন দু:শ্চিন্তায় পড়ে গেছেন কলকাতা বাটার নগর এলাকা থেকে নারায়ণগঞ্জে স্বপরিবারে বেড়াতে আসা রতন দে।

এঘটনায় সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভুগীরা। সিসি টিভির ফুটেজ দেখে ছিনতাইকারীদের সনাক্তে পুলিশ চালিয়ে যাচ্ছেন আপ্রাণ চেষ্টা বলে দাবী করেন সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।

ভারতীয় নাগরিক শুকলা দে এর কাকা শ^শুর বাবুল দে জানান, তার বাসা শহরের ডন চেম্বার (ব্যাংক কলোনী) এলাকায়। তার বাড়িতে বেড়াতে আসছিল শুকলা দে ও তার পরিবারের সদস্যরা। মঙ্গলবার সকাল পৌনে ৬ টার দিকে তার আতœীয় শুকলা দে তার স্বামী রতন দে এবং মেয়ে রক্তিমা দে ভারতের কলকাতা থেকে সোহাগ পরিবহনের বাসে করে নারায়ণগঞ্জ চাষাড়া জিয়া হলের সামনে নেমে তার জন্য অপেক্ষা করতে থাকেন।

তিনি সেখানে গিয়ে একটি রিক্সায় শুকলা দে ও তার মেয়ে রক্তিমা দে’কে উঠিয়ে দিয়ে পেছনে আরেকটি রিক্সায় শুকলা দে’র স্বামী রতন দে কে নিয়ে বাড়ির উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলেন। এরপর রিক্সাটি কিছুদূর গিয়ে শহরের মিশনপাড়া এলাকায় আসলে একটি সাদা প্রাইভেট কার করে আসা ৩/৪জন যুবক গাড়ির জানালার গ্লাস খুলে শুকলার দে এর হাতে থাকা একটি ব্যানেটি ব্যাগ টেনে ধরেন। এ সময় তার হাত থাকা ব্যাগটি টানাটানি করাকালে সে রিক্সা থেকে ছিটকে রাস্তর উপর পরে গিয়ে তার নাকে, মুখে ও ডান হাতে মারাতœক আঘাত প্রাপ্ত হন।

বাবুল দে আরো জানান, ব্যাগটিতে কলকাতা থেকে আগত তিন জনের ৩টি ভারতীয় পাসপোর্ট, ৩টি মোবাইল ফোন,ভারতীয় আইডি কার্ড ও প্রয়োজনীয় কিছু কাগজপত্র ছিল।

ছিনতাইয়ের শিকার ভারতীয় নাগরিক শুকলা দে জানান, কলকাতার ১০৪ নং বাটা নগর এলাকায় তাদের বাসস্থান। কিছুদিন পরেই তার মেয়ে রক্তিমা দে (১৫) এর স্কুলে পরীক্ষা হবার কথা। পাসপোর্ট না পেলে তিনি এখন কি করে দেশে ফিরবেন এনিয়ে দু:শ্চিন্তায় রয়েছেন বলে জানান।’

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার অফিসার (ইনচার্জ) মীর শাহিন শাহ পারভেজ নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডিকে জানান, ‘এ ঘটনায় নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আমরা সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে ওই প্রাইভেটকারটিকে সনাক্ত করার চেষ্টা করছি।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here