নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, “সমাজে বিশৃঙ্খলা থাকলে শান্তিতে ধর্মচার্চা সম্ভব নয়। তাইতো খালেদা জিয়ার মত জঙ্গির সঙ্গী বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হয়েছিলেন। ৭১’র স্বাধীনতা যুদ্ধে আমরা মানুষরূপী পশুদের হত্যা করলেও এখনো আমাদের এই স্বাধীন দেশে অনেক মানুষ রূপী পশু আছে। সেই আলবদর রাজাকার, দেশদ্রোহীরা আজও অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশকে জঙ্গিবাদের মাধ্যমে অশান্ত করতে চায়। তাই শান্তি চাইলে এই জঙ্গির সঙ্গীদের ক্ষমতা আর রাজনীতির বাইরে রাখতে হবে। আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে মারা মানুষরূপী এসকল পশুদের আর ক্ষমতায় আসতে দেয়া যাবে না।”

বুধবার (২১ মার্চ) রাত ৯ টায় শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণদেবের ১৮৩ তম জন্মতিথি উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ রামকৃষ্ণ মিশনে আয়োজিত চারদিন ব্যাপী অনুষ্ঠানমালার দ্বিতীয় দিনে ‘সকলের মা সরদা’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী আরো বলেন, “শেখ হাসিনার সরকার সকল ধর্মাবলম্বীদের সাথে আছে। একটি অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র গড়তে আমাদের সরকার প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। ধর্মচর্চার জন্যে দেশে শান্তি বজায় রাখতে হয়। আজকে আমরা যে মহাপুরুষের কথা স্মরণ করছি, সেই শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ পরহংসদেব বলেছেন, ‘অন্যের দোষ দেখার আগে নিজে দিকে দেখো। তোমারও দোষ কম নয়।’ সেই কথা থেকেই বলছি আমারো দোষ আছে বৈকী নইলে আমি কেন প্রধানমন্ত্রী হতে পারি নাই।”

হাসানুল হক ইনু দাবী করে বলেন, “৭১’র যুদ্ধ শেষ হলেও তারা নির্মূল হয়নি। তাই শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা জঙ্গি, সন্ত্রাস, মাদক ও দেশদ্রোহীদের নির্মূলের যুদ্ধে আছি।”

ঢাকা রামকৃষ্ণ মিশনের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ স্বামী ধ্রুবেশানন্দজী মহারাজের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ-৫ (সদর-বন্দর) আসনের সাংসদ একেএম সেলিম ওসমান, অতিরিক্ত জেলা পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মো: মোস্তাফিজুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) জসীম উদ্দিন হায়দার, চাঁদপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অধ্যক্ষ শ্রীমৎ স্বামী স্থিরাত্মানন্দজী মহারাজ, ঢাকা সারদা সংঘের সভানেত্রী শ্রীমতি সন্ধ্যা সাহা, সম্পাদিকা শ্রীমতি মীরা সাহা, সহ-সভানেত্রী শ্রীমতি কাজল হাওলাদার, এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক প্রবীর কুমার সাহা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here