নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: তারা দুইজনই ছাত্রদল নেতা। একজন নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক আবুল কাউসার আশা ও আরেকজন নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক মশিউর রনি। অথচ কেন্দ্রীয় কর্মসূচি পালনের ক্ষেত্রে তারা দু’জন নারায়ণগঞ্জ পুলিশের দু’রকম আচরনের মুখোমুখি হচ্ছেন, আর এ নিয়ে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে ছাত্রদলের তৃণমূলে।
বিএনপি’র সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে একদিকে পুলিশের নাকের ডগায় ফতুল্লার রাজপথ কাঁপিয়ে লোকজন নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করছেন মশিউর রনি, আর একই দাবীতে নগরীর রাজপথে আবুল কাউসার আশাকে দাঁড়াতেই দেয়নি পুলিশ। একই বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ পুলিশের দ্বিমূখী আচরন পক্ষপাতমূলক মনে করে তৃণমূল।

সূত্র মতে, বিএনপি’র সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের গ্রেফতারী পরোয়ানার প্রতিবাদে মঙ্গলবার (২৪ অক্টোবর) ফতুল্লার ঢাকা-মুন্সিগঞ্জ মহাসড়কের পঞ্চবটিতে নেতাকর্মী নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক মশিউর রহমান রনি। আর এ সময়টাতে নেতাকর্মীদের উপর চরাও হয়নি ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশ।

অথচ একই দাবীতে বুধবার (২৫ অক্টোবর) সকালে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে মহানগর বিএনপি’র বিক্ষোভ কর্মসূচিতে উপস্থিত নারায়ণগঞ্জ মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক আবুল কাউসার আশাকে রাস্তায় দাঁড়াতেই দিলো না সদর মডেল থানার পুলিশ। এমনকি আশা যখন পুলিশের বাঁধার মুখে পিছু হটে চাষাড়া শহীদ মিনার সংলগ্ন পেট্রোল পাম্পে এসে অবস্থান নেয়র চেষ্টা করেন, তখনও পুলিশ তাকে হেনস্তা করে বলে অভিযোগ করেন নেতাকর্মীরা।

শুধু আশাই নয়, মহানগর বিএনপি’র সিনিয়র নেতাদের সাথেও বিরূপ আচরনে করে পুলিশ। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক এটিএম কামাল রাজপথের পরিবর্তে ফুটপাতে দাড়িয়ে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালনের কথা জানালেও তাতে কর্ণপাত করেনি তারা, বরং জুয়েল নামে এক কর্মীকে আটক করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। পরে পুলিশের মারমুখী আচরনে অনুষ্ঠান করতে না পেরে সংবাদ সম্মেলন করেছে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপি।

একই কর্মসূচিতে নারায়ণগঞ্জ পুলিশের দুই রকম আচরনে ক্ষুব্দ নারায়ণগঞ্জ ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা। তাদের মতে রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন করা প্রতিটি নাগরিকের অধিকার। অথচ যে দাবী নিয়ে ফতুল্লার নেতাকর্মীরা রাজপথ কাঁপিয়ে দিচ্ছে, সে একই দাবী নিয়ে রাস্তায় দাড়াতেই পারছে না মহানগরের নেতাকর্মীরা। এমনকি গ্রেফতারও করা হচ্ছে। একটি স্বাধীন দেশের রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের উপর পুলিশের এই ধরনের দ্বৈত নীতি কোনভাবেই কাম্য নয় বলে দাবী তৃণমূলের।

উল্লেখ্য, নারায়ণগঞ্জ জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক মশিউর রহমান রনি হচ্ছেন জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও ফতুল্লা থানা বিএনপির সভাপতি শিল্পপতি শাহ আলমের ভাগ্নে। আর মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক আবুল কাউসার আশা হচ্ছেন সাবেক এমপি মহানগর বিএনপির সভাপতি এড. আবুল কালামের পুত্র।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here