নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: উচ্ছেদের নামে অবৈধ ভাবে মালামাল লুটপাট করে নিয়ে যাওয়ার সময় নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ময়লাবাহী দু’টি গাড়ী গতিরোধ করে লুন্ঠিত মালামাল উদ্ধার করে নিয়েছে নগরীর ফুটপাতের হকাররা। আর বিপাকে পড়ে হকারদের মালামাল ফেরত দিয়ে যায় পরিচ্ছন্ন কর্মীরা।
রবিবার (১৪ মে) দুপুরে নগরীর চাষাড়া এলাকায় এমনই ঘটনা ঘটে।

জানাগেছে, ফুটপাত বা কোথাও উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করতে হলে একজন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেসহ আইনশৃংখলা বাহিনীর সদস্যদের উপস্থিতি থাকতে হবে।

কিন্তু নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের পরিচ্ছন্ন কর্মীরা প্রায়ই দিনে কিংবা রাতে ময়লাবাহী গাড়ী নিয়ে নগরীর ফুটপাতে উচ্ছেদের ভয় দেখিয়ে মালামাল লুট করে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ করেন সাধারন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা। যেই কারনে বাধ্য হয়েই রবিবার সিটি কর্পোরেশনের ময়লাবাহী গাড়ী গতিরোধ করে পরিচ্ছন্ন কর্মীদের লুন্ঠিত মালামাল উদ্ধার করে রাখা হয়েছে।

বেশ কয়েকজন হকার নেতা অভিযোগ করেন, ফুটপাতে ব্যবসা পরিচালনা করার জন্য তারা প্রতি মাসে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা মো: হিরন ও গোবিন্দকে চাঁদা প্রদান করে থাকেন। যার ফলে সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনায় বের হওয়ার সময় তারা হকারদের মুঠোফোনে তা জানিয়ে দেন। এছাড়াও বেশ কয়েকজন পরিচ্ছন্ন কর্মীকে সাপ্তাহিক চাঁদা প্রদান করে থাকেন হকাররা। কিন্তু এরপরেও বেআইনীভাবে ময়লাবাহী গাড়ী নিয়ে পরিচ্ছন্ন কর্মীরা হকারদের মালামাল লুটে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে সিটি কর্পোরেশনে গিয়ে সেই মালামাল আর ঠিকভাবে ফেরত পাওয়া যায়না। তাই পরিচ্ছন্ন কর্মীদের লুটপাট বন্ধে হকাররা ঐক্যবদ্ধ হয়ে গাড়ী গতিরোধ করেছে বলে জানান, হকার নেতা রহিম মুন্সী ও আসাদ।

আর হকারদের অভিযোগের বিষয়ে জানতে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের কর্মকর্তা মো: হিরনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি মুঠোফোন রিসিভ করেন নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here