নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১১নং ওয়ার্ডে জাতীয় স্মার্ট কার্ড বিতরণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে।
মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারী) সকাল সাড়ে ৯টায় কিল্লারপুর এলাকায় বিবি মরিময় বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন সদর উপজেলার নবাগত নির্বাচন অফিসার মো. মোমেন মিয়া ও স্থানীয় কাউন্সিলর জমসের আলী ঝন্টু। এ সময় কয়েকজন বীর মুক্তিযোদ্ধাসহ এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রথম দিন এ ওয়ার্ডের তিনটি এলাকার পুরুষ ভোটাররা স্মার্ট কার্ড পাবেন। তিনটি এলাকা হলো- ওয়াটার ওয়ার্কস রোডের ২য় অংশ, তল্লা রোড উত্তর ও তল্লা রোড দক্ষিণ। এসব এলাকার মহিলা ভোটারদের মাঝে ২২ ফেব্রুয়ারি স্মার্ট কার্ড বিতরণ করা হবে।

ভোটারদের সুবিধার্থে বিভিন্ন এলাকায় কাউন্সিলর জমসের আলী জন্টু ও তার সাথে নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থী অহিদুল ইসলাম ছক্কুর পক্ষ থেকে স্মার্ট কার্ড বিতরণ কার্যক্রমের বিস্তারিত তথ্য সম্বলিত ফেস্টুন সাঁটানো হয়েছে। স্মার্ট কার্ড বিতরণের শুরু থেকেই তারা ভেতরে ও বাইরে অবস্থান নিয়ে নিজেদের লোক দিয়ে ভোটারদের সহযোগিতা করতে দেখা গেছে।

কার্ড বিতরণে প্রথমে বিশৃংখলা থাকলেও সময় ঘরানোর সাথে সাথে তা স্বাভাবিক হয়ে আসে। অনেকে সকাল ৬টা থেকে লাইনে দাঁড়ানো এবং নির্ধারিত এলাকার বাইরের ভোটাররা লাইনে থাকায় কার্ড বিতরণে বিশৃংখলা দেখা দেয়।

সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার মো. মোমেন মিয়া জানান, ১১নং ওয়ার্ডে ১৭ হাজার ৬শ’ ৮২ জন ভোটারের মাঝে জাতীয় স্মার্ট কার্ড বিতরণ করা হবে। ৬ দিনে এসব কার্ড বিতরণ কার্যক্রম সম্পন্ন হবে। যা ২০ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয়ে ২৭ ফেব্রুবারি পর্যন্ত চলবে। মাঝে ২১ ও ২৪ ফেব্রুয়ারি বন্ধ থাকবে। প্রতিদিন সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলবে।

এ কার্যক্রমের টিম লিডার সোহেল আহমেদ হৃদয় জানান, স্মার্ট জাতীয় পরিচয় পত্র গ্রহণের জন্য ভোটারদের তাদের পুরানো কার্ডটি সঙ্গে নিয়ে আসতে হবে। সেটি যদি না থেকে তাহলে বিতরণ কেন্দ্রে মোবাইল ব্যাংকিং ‘রকেট’ এর মাধ্যমে ৩শ’ ৪৫ টাকা জমা দিয়ে নতুন স্মার্ট কার্ড সংগ্রহ করা যাবে। এ ছাড়া কেউ যদি নির্ধারিত সময়ের মাধ্যমে সঙ্গত কারণে স্মার্ট কার্ড নিতে না পারেন তাহলে পরবর্তীতে নির্বাচন অফিস থেকে তা সংগ্রহ করা যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here