নিউজ প্রাচ্যেওর ডান্ডি: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সিনেটে নির্বাচনে ২৫ জন রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত গণতান্ত্রিক ঐক্য পরিষদকে বিজয়ী করার ঘোষণা দিয়েছে নারায়ণগঞ্জ ক্ষমতাসীণ দলের আইনজীবীরা।
বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারী) বিকেলে নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতি ভবনে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে সিনেট নির্বাচনে গণতান্ত্রিক ঐক্য পরিষদের পরিচিতি সভায় এমন কথা জানান নারায়ণগঞ্জের আইনজীবী নেতারা।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক খোকন সাহা তার বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে দুইটি ধারা বিদ্যমান। একটি স্বাধীনতার পক্ষে, অন্যটি স্বাধীনতার বিপক্ষে। সিনেট নির্বাচনে গণতান্ত্রিক ঐক্য পরিষদ স্বাধীনতার পক্ষের প্যানেল। এই প্যানেল আমাদের জননেত্রী শেখ হাসিনার প্যানেল। আর তাই এই প্যানেল কে বিজয়ী করতে নারায়ণগঞ্জের ৭০ থেকে ৮০ ভাগ ভোট পাবে গণতান্ত্রিক ঐক্য পরিষদ।

সিনেটের প্রার্থীদের পরিচয় করাতে গিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেট সদস্য এসএম বাহালুল মজনুন চুন্নু বলেন, আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে নারায়ণগঞ্জে আমাদের অনেক ইতিহাস রয়েছে। গত সিনেট নির্বাচনে আমরা নারায়ণগঞ্জ থেকে বিজয়ী হতে পেরেছিলাম। আশা করবো, আসন্ন নির্বাচনেও এই জয়ের ধারা অব্যাহত থাকবে।

তিনি আরো বলেন, কিছু পাওয়ার জন্য নয়, সরকারের নেপথ্যে কাজ করার প্রত্যয় নিয়েই আমরা নির্বাচনে অংশ নিয়েছি। আমরা যদি প্রত্যাশা করি, আগামীতে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে পূনরায় ক্ষমতায় আসুক, তাহলে এই নির্বাচনে বিজয়ের বিকল্প নেই। এই নির্বাচন জাতীয় নির্বাচনের আগে একটি গুরুত্বপূর্ণ অর্থ বহন করে। তাই আওয়ামী লীগ যাতে আগামীতেও নির্বিঘেœ দেশ পরিচালনা করতে পারে, সেই লক্ষ্যে গণতান্ত্রিক ঐক্য পরিষদের বিজয় নিশ্চিত করতে হবে। সুতরাং আপনারা জাতীয় নির্বাচনকে উপলব্ধি করে কাজ করুন।

সভাপতির বক্তব্যে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বলেন, নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগ থেকে পুরো ভোট পাবে গণতান্ত্রিক ঐক্য পরিষদ। সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সকলকে চিঠি দিয়েছেন সিনেট নির্বাচনে প্রার্থীদের জয়ী করতে। সবাইকে এক হয়ে প্রার্থীদের পক্ষে ভোট চাইতে হবে।

উল্লেখ্য যে, আগামী ১৩ জানুয়ারী নারায়নগঞ্জে সরকারি তোলারাম কলেজ কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেট নির্বাচনের ভোট গ্রহণ। উক্ত নির্বাচনে আওয়ামী লীগ সমর্থিত গণতান্ত্রিক ঐক্য পরিষদের মোট ২৫ জন্য রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। এরা হলেন অধ্যাপক ড. অসীম সরকার, এ.আর.এম মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল, এনার্জিপ্যাক ইঞ্জনিয়ারিং লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ এইচ এম এনামুল হক চৌধুরী, অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, এবিএম বদরুদ্দোজা, অধ্যাপক এম ইকবাল আর্সলান, এম ফরিদউদ্দিন, অধ্যাপক ড. এমরান কবীর চৌধুরী, এস এম বাহালুল মজনুন চুন্নু, অধ্যাপত ড. জিনাত হুদা, অধ্যাপক ড. তাজিন আজীজ চৌধুরী, নিজাম চৌধুরী, মিসেস মাহফুজা খানম, অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আবদুস সামাদ, অধ্যাপক মোঃ আব্দুল বারী, মোঃ আতাউর রহমান প্রধান, অধ্যাপক ডা. মোঃ আব্দুল আজীজ, মোঃ আলাউদ্দিন, মোঃ নাসির উদ্দিন, ড. মোঃ লিয়াকত হোসেন মোড়ল, রঞ্জিত কুমার সাহা, রামেন্দু (কৃষ্ণ) মজুমদার, অধ্যাপক শরীফ আহমদ সাদী, অধ্যাপক ড. সাদেকা হালিম এবং অধ্যাপক ড. সৈয়দ হুমায়ুন আখতার।

নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও জেলা গণতান্ত্রিক ঐক্য পরিষদের সমন্বয়ক আনিসুর রহমান দিপুর সঞ্চালনায় পরিচিতিমূলক সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন গণতান্ত্রিক ঐক্য পরিষদের প্রার্থী, অধ্যাপক ড. অসীম সরকার, অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, এস এম বাহালুল মজনুন চুন্নু, অধ্যাপত ড. জিনাত হুদা, অধ্যাপক ড. তাজিন আজীজ চৌধুরী, নিজাম চৌধুরী, মিসেস মাহফুজা খানম, অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আবদুস সামাদ, অধ্যাপক ডা. মোঃ আব্দুল আজীজ, মোঃ আলাউদ্দিন, মোঃ নাসির উদ্দিন, ড. মোঃ লিয়াকত হোসেন মোড়ল, রঞ্জিত কুমার সাহা, অধ্যাপক ড. সৈয়দ হুমায়ুন আখতার, বাংলাদেশ আওয়ামী ন্যাশনাল পার্টি জেলার যুগ্ন সম্পাদক এ্যাড. আওলাদ হোসেন, কেন্দ্রীয় অধ্যক্ষ পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মাওতাজ উদ্দিন মর্তুজা, স্বাধীনতা চিকিৎসা পরিষদের জেলার সেক্রেটারি ডা. দেবাশীষ সাহা, এ্যাড. আসাদুজ্জামান, পাবলিক পসিকিউটর (পিপি) ওয়াজেদ আলী খোকন, জিপি মেরিনা বেগম, নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. মাহামুদা মালা, আইনজীবী সমিতির সেক্রেটারি হাবীব আল মোজাহিদ পলু, সাবেক সেক্রেটারি হাসান ফেরদৌস জুয়েল, বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড. নুরুল হুদা প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here