নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডি: প্রধাণ অতিথির হাত থেকে পুরস্কার গ্রহন করতে না পেরে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় বিজয়ী আইনজীবীরা চরাও হয়েছেন নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এড. হাবিব আল মুজাহিদ পলুর উপর। এ নিয়ে চরম বিশৃঙ্খলা আর হট্রোগোলের সৃষ্টি হয় অনুষ্ঠানস্থলে। পরে সমিতির সদস্যদের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসে। সমিতির সভাপতি এড. আনিসুর রহমান দিপুর অসুস্থ্যতার কারনে অনুপস্থিতির জন্যই এ ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে বলে মন্তব্য করেছেন অনুষ্ঠানে আগত আইনজীবীরা। যদি দিপু আজ এখানে উপস্থিত থাকতে পারতেন তাহলে এধরনের অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটতো না।

বৃহস্পতিবার (২৬ অক্টোবর) বিকেলে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির আয়োজনে বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পুরস্কার বিতরণ, আইনজীবীর সন্তানদের জিপিএ ফাইভ , আইন পেশায় ২৫ বছর পূর্তি, সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণের সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠান শেষে ঘটে এই বিশৃঙ্খলা।

আইনজীবীদের সূত্রে জানা যায়, এই অনুষ্ঠানটি মূলত বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান। এর সাথে আইনজীবীদের সন্তানদের জিপিএ ফাইভ, আইন পেশায় ২৫ বছর পূর্তি, সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণের সম্মাননা প্রদান যোগ করা হয়েছে।

কিন্তু এই অনুষ্ঠানে সকল বিভাগের পুরস্কার প্রধাণ অতিথির হাত দিয়ে সবাইকে প্রদান করা হলেও যে উদ্দেশ্যে অনুষ্ঠানের আয়োজন, সেই ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার বিজয়ীদের পুরস্কার দেওয়া হলো না। আর তাই অনুষ্ঠান শেষে ক্রীড়া সম্পাদক মাহমুদুল হক মোমিনকে দোষারোপ করতে থাকেন ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় বিজয়ী আইনজীবীরা। এ সময় ক্রীড়া সম্পাদক মাহমুদুল হক মোমিন উত্তেজিত হয়ে সমিতির সাধারণ সম্পাদকের দিকে তেড়ে যান এবং জানতে চান, কেন ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করা হলো না! তখন সেখানে উপস্থিত সমিতির অন্যান্য সদস্যরা মোমিনকে ধরে বাইরে নিয়ে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন।

ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণীতে ত্রুটি ছাড়াও পুরো অনুষ্ঠানের আয়োজন নিয়েও ক্ষোভ প্রকাশ করেন আগত আইনজীবীরা। যে সকল আইনজীবীদের এই আদালতে আইন পেশায় ২৫ বছর পার হয়েছে তাদেরকে সম্মানিত করার ক্ষেত্রেও অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ১৯৯২ সালে সনদ পাওয়া আইনজীবীদের সম্মাননা প্রদান করা হলেও ১৯৯১ সালে সনদ পাওয়া আইনজীবীদের সম্মাননা প্রদান কারা হয়নি। আর এ নিয়ে ১৯৯১ সালে সনদ পাওয়া এড. রিয়াজুল ইসলাম আজাদসহ বেশ কিছু আইনজীবীদের দেখা গেছে ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে। আর এ ধরনের একটি অনুষ্ঠান আয়োজন করতে সাধারণ সম্পাদক এড. হাবিব আল মোজাহিদ পলুর সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছেন বলে মনে করেন তারা।

অনুষ্ঠানে বিশৃঙ্খলা বিষয়ে জানতে চাইলে নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এড. হাবিব আল মোজাহিদ পলু নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডিকে বলেন, এ ধরনের ঘটনা ঘটবেই। ইতিপূর্বে কখনো ঘটেনি উল্লেখ করে জানতে চাইলে পলু বলেন, আগে ঘটেনি তাতে কি হয়েছে, আজকে ঘটেছে, ভবিষ্যতে আরো ঘটবে।

একই বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতির ক্রীড়া সম্পাদক মাহমুদুল হক মোমিন নিউজ প্রাচ্যের ডান্ডিকে বলেন, এই অনুষ্ঠানটি মূলত বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরনের, বাকীগুলো এর সাথে যোগ করা হয়েছে। কিন্তু যাদের উপলক্ষে অনুষ্ঠানের আয়োজন, তাদেরকেই পুরস্কার না দেওয়ায় আইনজীবীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছে। আগে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় ৫০/৬০ জন আইনজীবী অংশগ্রহন করতো। কিন্তু এবার ১৫৪ জন আইনজীবী অংশ নেয়। আমি সবাইকে অনুপ্রনিত করেছি পেশাগত দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি খেলাধুলার চর্চা করতে। তাই তারা আমাকে এ বিষয়ে দোষারোপ করছে, আমি তাদেরকে কি জবাব দিবো! আমারতো একটা দায়বদ্ধতা রয়েছে। তাই একটু উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছিলো। কিন্তু পরে সব কিছু মিটমাট হয়ে গেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here